অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার ১৫টি ওয়েবসাইট

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় – কথাটা শুনতে যতটা সহজ লাগে, প্রকৃতপক্ষে এটা ততটাই কঠিন। মনে রাখা প্রয়োজন, আপনিই একমাত্র ব্যক্তি নন যে কিনা অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম করার কথা ভাবছেন। এখানে আপনি হাজার হাজার ফটোগ্রাফার পাবেন যাদের প্রতিটি ছবি কম-বেশি প্রফেশনাল মানের। তাহলে বুঝতেই পারছেন এই প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে আপনাকে ঠিক কতটা দক্ষ হতে হবে।

সময়ের সাথে সাথে অনলাইন ভিত্তিক বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসের সংখ্যা দিন দিন দ্রুতহারে বাড়ছে। সেইসাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে অনলাইনে আয়ের সুযোগও। এখন আপনি চাইলেই হাতের স্মার্টফোন বা ক্যামেরায় তোলা ছবিগুলো বিক্রি করে বেশ ভালো পরিমাণ অর্থ আয় করতে পারবেন। যদি আপনি ছবি তুলতে ভালোবাসেন এবং আপনার তোলা ছবিগুলোর কোয়ালিটি মানসম্মত হয়, তাহলে এই সম্পূর্ণ লেখাটি আপনারই জন্য।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার জন্য কি কি প্রয়োজন?

যেহেতু কোনো একজন ক্লায়েন্ট অনলাইন থেকে নির্দিষ্ট পরিমাণ মূল্যের বিনিময়ে ছবি কিনবে, তাই সে অবশ্যই এমন ছবি চাইবে যা হাই কোয়ালিটির। সেজন্য আপনার ছবির রেজুলেশন, লাইট, কালার, এঙ্গেল, দৈর্ঘ্য-প্রস্থের অনুপাত সবকিছুই হওয়া চাই খুব ভালো মানের; যেন ক্লায়েন্টের তা পছন্দ হয়। আপনি জনপ্রিয় সাইটগুলোর সদস্যদের ছবি থেকে ছবির মান সম্পর্কে ধারণা পেতে পারেন।

কোয়ালিটিসম্পন্ন ছবির জন্য প্রথমেই যা প্রয়োজন তা হলো একটি ভালো মানের ক্যামেরা। সেটা কিন্তু আপনার স্মার্টফোনের ক্যামেরাও হতে পারে। ক্যামেরার কোয়ালিটি ভালো হলে যেকোনো স্মার্টফোন দিয়েই আপনি আপনার ফটোগ্ৰাফি শুরু করতে পারেন।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার ওয়েবসাইট
অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার জন্য কি কি প্রয়োজন?

ভালো মানের ছবির জন্য শুধু ভালো ক্যামেরা হলেই চলবে না। সেইসাথে প্রয়োজন ফটোগ্ৰাফি বিষয়ক বিশেষ জ্ঞান, দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা। এক্ষেত্রে আপনি ফটোগ্ৰাফি বিষয়ে কোন কোর্স করে নিলে সবচেয়ে ভালো হয়।

ফটো ইডিটের দক্ষতাও এখানে ভীষণ প্রয়োজন। আপনার যদি এডোবি ফটোশপের উপর দক্ষতা থাকে তবে আপনি অনলাইনে ছবি বিক্রির প্রতিযোগিতায় আরো একধাপ এগিয়ে যেতে পারবেন।

আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো অনলাইনে ব্রাউজিং এর দক্ষতা। যেহেতু সম্পূর্ণ পদ্ধতিটিই হবে অনলাইনে তাই যদি ব্রাউজার ব্যবহারের দক্ষতাই আপনার না থাকে তবে আপনি আপনার লক্ষ্যে এক পা ও এগোতে পারবেন না।

আরও পড়ুন-

কিভাবে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করা যায়?

আপনি দুভাবে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করতে পারেন।

১. নিজস্ব ওয়েবসাইটে ছবি আপলোড করে।
২. বিভিন্ন স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে ছবি আপলোড করে।

আপনি যদি নিজস্ব ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ছবি বিক্রির কথা ভেবে থাকেন তাহলে প্রথমেই আপনার প্রয়োজন হবে একটি নিজস্ব ওয়েবসাইট। সেখানে নিয়মিত ছবি প্রকাশের মাধ্যমে ধীরে ধীরে সাইটটি বড় করে তুলতে হবে। একসময় আপনার ছবিগুলো বিক্রি হতে শুরু করবে। তবে যেহেতু আপনার সাইটটি নতুন, তাই ক্লায়েন্ট পেতে আপনাকে প্রচুর শ্রম ও সময় দিতে হবে। কিন্তু এর একটি সুবিধা হলো, বিক্রি হওয়া ছবির জন্য আপনার কাউকে কোনো কমিশন দিতে হবে না।

অনলাইনে ছবি বিকি করে আয় করার সহজ উপায়

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার ক্ষেত্রে তুলনামূলক সহজ পদ্ধতি হলো বিভিন্ন স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে ছবি আপলোড করা।
ইন্টারনেটে এরকম হাজার হাজার ওয়েবসাইট বা মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেগুলো আপনাকে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয়ের সুযোগ করে দেবে।

এক্ষেত্রে শুধু আপনাকে যেকোন স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে গিয়ে সাইন আপ করে একটি একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হবে। এজন্য প্রয়োজন হবে আপনার নাম, ঠিকানা, ইমেইল এড্রেস, মোবাইল নাম্বারসহ আরো কিছু তথ্য। প্রত্যেক সাইটে নিবন্ধনের নিয়ম কিছুটা ভিন্ন। তাই যে কোন সাইটে নিবন্ধনের আগে অবশ্যই তার Terms and Conditions ভালো করে পড়ে নিতে হবে।

কিছু সাইট আছে যেগুলোতে সাইন আপের জন্য কোন ফি দিতে হয় না। আবার কিছু ওয়েবসাইটে সাইন আপের জন্য একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ ফি হিসেবে দিতে হয়। আপনি আপনার ছবি বিক্রির জন্য যেকোন সাইট বেছে নিতে পারেন।

একাউন্ট ক্রিয়েট করা হয়ে গেলেই আপনি সেখানে ইচ্ছেমত ছবি আপলোড করতে পারবেন না। স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটগুলোতে প্রত্যেকবার আপনার ছবির মান যাচাই করা হবে। আপনার সাবমিট করা ছবির মান ভালো হলে সেগুলো ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

কোন ক্লায়েন্ট যখন আপনার ছবি কিনে নিবেন, তার একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন আপনাকে দেওয়া হবে। অনেক ওয়েবসাইটে আপনি আপনার ছবির মূল্য নিজেই নির্ধারণ করতে পারবেন।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয়ের ক্ষেত্রে আরেকটি সুবিধা হলো আপনার আপলোড করা একটি ছবি শুধু একবার নয় একাধিকবার বিক্রি হতে পারে। এবং প্রত্যেকবার আপনাকে সেখান থেকে কমিশন দেয়া হবে।

আবার আপনি চাইলে একটি ছবি একাধিক সাইটে বিক্রি করতে পারেন। তবে মনে রাখতে হবে সব ওয়েবসাইট আপনাকে এই অনুমতি দেবে না।

অনলাইনে ছবি কারা কেনেন এবং কেন কেনেন?

ধীরে ধীরে অনলাইন ভিত্তিক কাজে মানুষের আগ্ৰহ বেড়ে চলেছে এবং ভবিষ্যতে এ সংখ্যা আরো বাড়বে। সেইসাথে বেড়ে চলেছে অনলাইন ভিত্তিক বিভিন্ন কর্পোরেট সংস্থা, গণমাধ্যম, বিজ্ঞাপনী সংস্থা, ডিজাইনার, মার্কেটার, ব্লগ ও অনলাইন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের‌ কার্যক্রম।

এসব প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন কাজের জন্য বিভিন্ন ধরনের ছবি কেনার প্রয়োজন হয়। হতে পারে সেটা কোন ফুল, ফল, গাছ, সমুদ্র বা নদীর ছবি; বা হতে পারে আন্দোলন, যানবান, যন্ত্রপাতি, খাবারদাবার, সাজসজ্জা, চিকিৎসা বা ভ্রমণের দৃশ্য।

এসব প্রয়োজনীয় ছবি সংগ্রহ করতে আলাদা করে ফটো শুট করা এসব প্রতিষ্ঠানের জন্য বেশ ব্যয়বহুল। তাছাড়া সার্চ ইঞ্জিন থেকে সরাসরি ছবি ডাউনলোড করে নিলে কপিরাইটের ঝামেলায় পড়তে হয়। এজন্যই তারা বিভিন্ন স্টক ইমেজ সাইট থেকে ছবি কেনেন।

ইন্টারনেটে এমন অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে রয়ালিটি ফ্রি ছবি একদম বিনামূল্যে পাওয়া যায়। যেমনঃ Pixels.com, Unsplash.com বা Pixabay.com থেকে পৃথিবীর অনেক প্রতিষ্ঠান বিনামূল্যে ছবি সংগ্ৰহ করে চলেছেন।

তবে অর্থ দিয়ে ভালো মানের ছবি কিনে ব্যবহার করবে ইন্টারনেটে এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যাও কিন্তু কম নয়।

ছবি অনলাইনে বিক্রি করা কতটা লাভজনক হতে পারে?

স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে আপলোড করা ছবিগুলো থেকে যখন কোন ক্লায়েন্ট ছবি কিনে নেন তার একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন ফটোগ্রাফারকে দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে ছবি বিক্রি করে আপনি ঠিক কতটা আয় করতে পারবেন তা নির্ভর করবে বেশ কয়েকটি বিষয়ের ওপর।

আপনি কি নিয়মিত ছবি আপলোড করছেন? আপনার উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তাহলে আপনি খুব শ্রীঘ্রই ছবিগুলো থেকে আয় করতে চলেছেন। আপনার আপলোড করা ছবির সংখ্যা যত বেশি হবে আপনার আয়ের সম্ভাবনাও তত বাড়বে। এক্ষেত্রে ছবিগুলো হতে হবে বেশ ভালো মানের; যেন সেগুলো ক্লায়েন্টের দৃষ্টি আকর্ষণ করে।

অনেক ওয়েবসাইট তাদের বিভিন্ন সাবস্ক্রিপশন প্যাকেজের উপর ছবি বিক্রি করে। এসব প্যাকেজের উপরও আপনার কমিশন নির্ভর করবে। এক্ষেত্রে প্যাকেজের মূল্য নির্ধারণ করা হয় দৈনিক বা মাসিক ছবির সংখ্যা হিসেবে। ওয়েবসাইটভেদেও এই প্যাকেজের মূল্যে তারতম্য দেখা যায়।

ছবি বিক্রির ধরণের উপরও অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করা নির্ভর করবে। যখন আপনি একটি নির্দিষ্ট ছবি একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে (Exclusively) বিক্রি করবেন তার বিনিময়ে আপনাকে তুলনামূলক বেশি কমিশন দেওয়া হবে। আর যদি একটি নির্দিষ্ট ছবি আপনি বিভিন্ন ওয়েবসাইটে (Non Exclusively) বিক্রি করেন তাতে আপনার কমিশনের পরিমাণ কমে যাবে।

আবার, ছবি Exclusively বিক্রি করা হলে আপনি শুধু একটি ওয়েবসাইট থেকেই কমিশন পাবেন। কিন্তু যদি সেটি Non Exclusively বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বিক্রি করা হয় তবে কমিশনও পাওয়া যাবে একাধিক ওয়েবসাইট থেকে।

একটি নির্দিষ্ট ছবির জন্য আপনাকে কত কমিশন দেওয়া হচ্ছে আপনার আয়ের পরিমাণ তার উপরও নির্ভরশীল। যদি ছবির কমিশন কম হয় তবে স্বাভাবিকভাবেই আপনার আয় কমে যাবে। আবার কম কমিশনেও যদি ছবিটি একাধিকবার বিক্রি হয় তবে আয়ের পরিমাণ বেড়ে যাবে অনেকটাই।

প্রয়োজন হতে পারে এমন কিছু-

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার ১৫ টি জনপ্রিয় স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট


1. Adobe Stock

অনলাইনে ছবি বিক্রি করার ওয়েবসাইট
অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার সেরা ওয়েবসাইট – Adobe Stock

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয়ের জন্য Adobe stock খুবই জনপ্রিয় একটি পোর্টাল। এখানে একাউন্ট ক্রিয়েট করে আপনি যত খুশি ছবি বা ভিডিও আপলোড করতে পারবেন। এ পোর্টালটি বিভিন্ন দেশ থেকে প্রতিদিন হাজার হাজার ক্লায়েন্ট ভিজিট করেন প্রিমিয়াম ছবি কেনার জন্য। এখানে প্রতি ছবি বিক্রিতে আপনাকে ৩৩% কমিশন দেওয়া হবে।

Sign Up

2. Fotolia.com

ফটোলিয়া Adobe Stock এর আলাদা একটি সার্ভিস। এখানে আপনি প্রতি ছবির জন্য ২০%-৬০% পর্যন্ত কমিশন পেতে পারেন।

3. Alamy.com

অনলাইনে ছবি বিক্রি করার ওয়েবসাইট Alamy
অনলাইনে ছবি বিক্রি করার ওয়েবসাইট – Alamy.Com

এই সাইটে “Contributor account” তৈরি করে আপনি সহজেই আপনার ছবিগুলো আপলোড করতে পারবেন। এটি তুলনামূলক সহজ একটি পোর্টাল। এ প্লাটফর্মে প্রায় ৬০,০০০ সদস্য এবং ১১০,০০০ জনের বেশি ক্রেতা রয়েছে। এখানে প্রতি Exclusive ছবির জন্য ৫০% এবং non exclusive ছবির জন্য আপনি ৪০% করে কমিশন পেতে পারেন।

আয় করা টাকা প্রত্যেক মাসের প্রথম তারিখে আপনার একাউন্টে দিয়ে দেয়া হবে। একাউন্টে ৫০ ডলার জমা হলেই আপনি টাকা তুলতে পারবেন।

এই পোর্টালটির Stokimo নামে আলাদা একটি এ্যাপ রয়েছে; যেখানে আপনি একই ভাবে ছবি বিক্রি করে আয় করতে পারবেন।

Sign Up

4. BigStockPhoto

এখানে “Contributor account” তৈরি করার পর আপনি আপনার ছবিগুলো আপলোড করা শুরু করতে পারেন। রিভিউয়ের পর ছবিগুলো যদি গ্ৰহণযোগ্য হয় তাহলে সেগুলো BigStock এর ওয়েবসাইটে ইমেজ কালেকশনে যোগ করা হবে।

প্রত্যেক ছবি ডাউনলোডের জন্য প্রতিবার আপনাকে ০.২৫-৩.০০ ডলার কমিশন দেওয়া হবে। এছাড়া type of payment plan ও image size এর উপরেও আপনার আয় নির্ভর করবে।

5. Shutterstock.com

অনলাইনে ছবি বিক্রি করার ওয়েবসাইট - Shutterstock.Com
অনলাইনে ছবি বিক্রি করার ওয়েবসাইট – Shutterstock.Com

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয়ের ক্ষেত্রে Shutterstock খুবই জনপ্রিয় একটি প্রিমিয়াম স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট। হাই কোয়ালিটির ছবির জন্য প্রতিদিন প্রায় লক্ষ্য লক্ষ্য ক্লায়েন্ট সাইটটি ভিজিট করে থাকেন।

এখানে আপনার ছবির প্রত্যেক ডাউনলোডের উপর আপনাকে ২০-৩০% কমিশন দেওয়া হবে। এছাড়া ক্লায়েন্টের ‘subscription plans’ এর ওপর আপনার আয় নির্ভর করবে। আয় করা সম্পূর্ণ টাকা আপনাকে প্রতি মাসে দিয়ে দেয়া হবে।

যদিও সাইটটিতে সাইন আপ করা কিছুটা ঝামেলাপূর্ণ তবে নতুনদের জন্য এই সাইটটিই সবচেয়ে ভালো।

Sign Up

6. 500px Prime

বিশ্বের প্রায় ৫ মিলিয়ন ফটোগ্ৰাফার এ সাইটটির সঙ্গে যুক্ত। 500px Prime পেশাদার ও অপেশাদারদের নিয়ে তৈরি একটি কমিউনিটি বেসড ওয়েবসাইট। এখানে আপনি অন্যদের ফলো করতে ও সেইসাথে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন। এজন্য শুধু প্রয়োজন একটি ফ্রি একাউন্ট ক্রিয়েট করা।

এখানে আপনি non exclusive ছবির জন্য ৩০% এবং exclusive ছবির জন্য ৬০% পর্যন্ত কমিশন পেতে পারেন।

7. IstockPhoto.com

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয়ের জন্য IstockPhoto নামকরা একটি micro stock channel; যেখানে আপনি সহজেই আপনার ছবিগুলো বিক্রি করতে পারবেন।

তবে একজন Contributor হিসেবে কাজ শুরু করার আগে আপনাকে প্রথমে ৩ টি ছবি সাবমিট করতে হবে। ভেরিফিকেশনের পর যদি Istock team এর সেগুলো ভালো লেগে যায় তবে আপনাকে একজন Contributor হিসেবে বেছে নেয়া হবে। এরপর আপনি আপনার ছবিগুলো আপলোড করা শুরু করতে পারবেন।

এখানে প্রত্যেক ছবি বিক্রির বিপরীতে আপনাকে কমপক্ষে ১৫% কমিশন দেয়া হবে। এছাড়া এক্সট্রা ফিচারের মাধ্যমে আপনি ৪৫% পর্যন্ত কমিশন পেতে পারেন।

Sign Up

8. SmugMug Pro

SmugMug Pro অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয়ের ক্ষেত্রে লাভজনক একটি ওয়েবসাইট। এখানে প্রত্যেক ছবি বিক্রির জন্য আপনি ৮৫% পর্যন্ত কমিশন পেতে পারেন।

তবে এ সাইটটিতে আপনি বিনামূল্যে একাউন্ট ক্রিয়েট করতে পারবেন না। মাসিক ১২.৫০ ডলার সাবস্ক্রিপশন ফি দিয়ে আপনাকে সাইন আপ করতে হবে।

9. 123RF

অনলাইন স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটগুলোর মধ্যে 123RF অন্যতম। সাইটটি ৪৪ টি ভিন্ন দেশের প্রায় ৫ মিলিয়ন ক্রেতা প্রতিনিয়ত ভিজিট করে চলেছেন।

যেহেতু 123RF এ সকল ছবিই non exclusive তাই আপনি এই সাইটে দেয়া ছবিগুলো অন্য যেকোন সাইটে বিক্রি করতে পারেন। এখানে আপনার প্রত্যেক ছবি বিক্রির জন্য আপনি ৩০% থেকে ৬০% পর্যন্ত কমিশন পেতে পারেন।

10. Can Stock Photo

৯২,০০০+ ফটোগ্ৰাফার এই সাইটটিতে তাদের ছবি বিক্রি করে আসছেন। এখানে প্রতি ৫০ টি ছবি বিক্রির বিপরীতে আপনাকে ৫ ডলার করে দেওয়া হবে। এছাড়া আরো বিভিন্ন পদ্ধতিতে তারা কমিশন দিয়ে থাকে।

11. Depositphotos

Depositphotos একটি গ্লোবাল ওয়েবসাইট। এখানে রয়েছে বিশ্বের সব দেশের প্রায় ১০০,০০০ জন Contributor এবং ২০০ টি ভিন্ন দেশ থেকে আসা ১৫০ মিলিয়ন ক্লায়েন্ট। এটি আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে খুবই ভরসাযোগ্য একটি ওয়েবসাইট। এখানে আপনার অভিজ্ঞতা, ছবির রেজুলেশন ও অন্যান্য বিষয় বিবেচনা করে আপনাকে ৩৪% থেকে ৪২% পর্যন্ত কমিশন দেওয়া হবে।

12. Pixieset

Pixieset এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজে একটি অনলাইন স্টোর তৈরি করতে পারবেন। এটি আপনাকে আপনার স্টোরের উপর সম্পূর্ণ অধিকার দেবে।

এ সাইটটি free plans এর জন্য আপনার প্রত্যেক ছবি থেকে ১৫% কমিশন রাখবে। আর যদি প্ল্যানসটি paid হয় তাহলে আপনার বিক্রি করা ছবির জন্য Pixieset কোন কমিশন চাইবে না। যেখানে Paid plans গুলো শুরু হয় মাত্র ৮ ডলার থেকে।

13. Twenty20

Twenty20 এর যাত্রা শুরু হয় ইনস্ট্রাগ্ৰাম ফটোগ্রাফারদের জন্য একটি টুল হিসেবে; যেখানে তাদের ছবিগুলো বিভিন্ন ব্রান্ড বা কম্পানীকে বিক্রি করা হতো।

বর্তমানে এটি জনপ্রিয় একটি স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে পরিণত হয়েছে। এখানে আপনি প্রতি ছবির জন্য ২ ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারেন। বিভিন্ন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বাড়তি আয়ের সুযোগও এখানে রয়েছে।

তাছাড়া কোন ব্রান্ড যদি আপনাকে তাদের Schedule Photoshoot এর জন্য নিযুক্ত করে তবে আপনার জন্য কমিশন হবে ১০০%!

Twenty20 এর নিজস্ব এ্যাপ রয়েছে। আপনি চাইলে সেটা ব্যবহার করেও ছবি বিক্রি করতে পারেন।

14. EyeEm

EyeEm ২৫ মিলিয়ন ফটোগ্ৰাফার ও ভিডিও-গ্ৰাফারের একটি জনপ্রিয় কমার্সিয়াল ইমেজ স্টক ওয়েবসাইট। অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয়ের জন্য এটি একটি উপযুক্ত পোর্টাল। এখানে প্রতি ছবির জন্য আপনাকে ৫০% পর্যন্ত কমিশন দেয়া হবে।

15. Stocksy

Stocksy অনলাইনে ছবি বিক্রির জন্য মোটামুটি জনপ্রিয় একটি পোর্টাল। এখানে একজন Contributor হওয়ার পাশাপাশি আপনি co-op (co-operative) সদস্য হিসেবে বিক্রি সংক্রান্ত অনেক কিছুই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

এ মার্কেটপ্লেসে আপনাকে প্রতি ছবি বিক্রির বিপরীতে Standard licenses এর জন্য ৫০% এবং Extended licenses এর জন্য ৭০% কমিশন দেয়া হবে। তবে Stocksy এর শর্তানুসারে প্রতিটি ছবি হতে হবে শতভাগ Exclusive; অর্থাৎ কোন ছবি আপলোড করার পর আপনি অন্য কোন সাইটে তা বিক্রি করতে পারবেন না।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার জন্য কতটা সময় লাগবে?

স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটগুলোতে একাউন্ট ক্রিয়েট করলেই আপনার আয় শুরু হয়ে যাবে না। এজন্য কিছু সময় অবশ্যই লাগবে।

বুঝতেই পারছেন, ১ বা ২ সপ্তাহে আপনি খুব বেশি ছবি আপলোড করতে পারবেন না। এজন্য কমপক্ষে ৫-৬ মাস আপনাকে নিয়মিত ছবি আপলোড করতে হবে।

যখন আপনার একাউন্টে বিভিন্ন বিষয়ের উপর প্রায় হাজার খানেকের মতো ছবির কালেকশন তৈরি হয়ে যাবে; তখন থেকে আপনি নিয়মিত আয়ের প্রত্যাশা করতে পারেন। তার আগে নয়।

তবে আপনার ছবিগুলো যদি ক্লায়েন্টের চাহিদা অনুযায়ী কোয়ালিটি সম্পন্ন হয় তাহলে আপনি কয়েক মাসের মধ্যেই ছবি বিক্রি করে আয় করা শুরু করবেন।

স্টক ইমেজ একাউন্ট থেকে টাকা তুলবেন কিভাবে?

স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটগুলো থেকে টাকা তোলার প্রক্রিয়া সামান্য জটিল। আপনি বেশ কয়েকভাবে আপনার স্টক ইমেজ একাউন্ট থেকে Cash out করতে পারেন।

অনেক অনলাইন মার্কেটপ্লেস “WIRE transfer” এর মাধ্যমে লোকাল ব্যাংকগুলোতে টাকা ট্রান্সফারের সুবিধা দিয়ে থাকে। এজন্য প্রয়োজন হবে মার্কেটপ্লেসে যে নামে রেজিষ্ট্রেশন করা আছে সে নামের ব্যাংক একাউন্ট, একাউন্ট নাম্বার, ব্রাঞ্চের SWIFT code এবং ব্যাংকের ঠিকানা। এক্ষেত্রে একাউন্টে টাকা আসতে ১-৬ দিন সময় লেগে যাবে‌।

MasterCard দিয়ে এখন পৃথিবীর যেকোন স্থানের ATM বুথ থেকে টাকা তোলা যায়। Payoneer MasterCard এর সাথে আপনাকে একটি আমেরিকান ব্যাংক একাউন্ট ও ইউরোপীয়ান ব্যাংক একাউন্ট দেওয়া হবে।

যেসকল মার্কেটপ্লেসে লোকাল ব্যাংকে টাকা ট্রান্সফারের সুযোগ নেই তারা US Bank account ব্যবহার করে টাকা ট্রান্সফার করে থাকেন। তাছাড়া জনপ্রিয় সকল মার্কেটপ্লেসেই US Bank transfer সুবিধা দেওয়া হয়।

এজন্য প্রথমেই আপনাকে www.payoneer.com এ প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। তথ্যে কোন ভুলত্রুটি থাকা যাবে না। ভুল ইনফরমেশন দেয়া হলে টাকা তোলার সময় সমস্যা হবে।

অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা ট্রান্সফারের জন্য একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হলো PayPal. তবে বাংলাদেশে এখনো এর সুযোগ-সুবিধা গড়ে ওঠেনি।

PayPal এর বিকল্প হিসেবে আপনি Skrill অনলাইন ব্যাংক ব্যবহার করতে পারেন। এজন্য প্রথমে আপনাকে www.skrill.com এ রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে।

মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা ট্রান্সফার করা হলে তা আপনার Skrill একাউন্টে সাথে সাথেই চলে আসবে। তবে এ টাকা আপনার লোকাল ব্যাংকে জমা হতে ৩-৭ দিন লেগে যেতে পারে।

অনলাইনে নিয়মিত ভালো মানের ছবি আপলোড করে, ছবি বিক্রির মাধ্যমে আপনি সহজেই মাসে একটি মোটা অংকের টাকা আয় করতে পারেন। তাই প্যাশনকে আয়ের মাধ্যমে পরিণত করতে দেরি না করে ক্যামেরা হাতে বেরিয়ে পড়ুন ছবির সন্ধানে।

Leave a Comment