অনলাইন পেইড সার্ভে কি? অনলাইনে সার্ভে করার সেরা ৭টি ওয়েবসাইট

অনলাইন পেইড সার্ভে কি, সার্ভে করে টাকা আয়ের জন্য কি কি জানা প্রয়োজন এবং পেইড সার্ভের সেরা ওয়েবসাইটগুলো নিয়ে বিস্তারিত লেখা হয়েছে এই আর্টিকেলটিতে।

মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম অনেকের কাছেই একধরণের স্বপ্ন। অথচ উপযুক্ত দক্ষতা এবং ল্যাপটপ কম্পিউটারের অভাবে অধিকাংশেরই এই স্বপ্ন রাতের ঘোরের মতোই অধরা রয়ে যায়। যারা অনলাইনে টাকা ইনকাম করার জন্য খুবই আগ্রহী কিন্তু দক্ষতার অভাবে কিছুই শুরু করতে পারছেন না, তাদের জন্যই মূলত আজকের এই আর্টিকেলটি।

যেহেতু, এই কাজ করার জন্য মস্তিষ্ককে বিশেষ চাপ প্রয়োগ করতে হয় না এবং দক্ষতাও লাগে না তেমন, তাই অনেকের জন্যই এটি একটি আদর্শ উপার্জন উৎস হয়ে উঠবে। বিশেষ করে, গৃহীনী, স্কুল কলেজ পড়ুয়া অথবা অনলাইন জগতের সঙ্গে সদ্য পরিচিত হওয়া ব্যক্তিরা অনলাইনে ইনকামের নতুন একটি আশার আলো দেখতে পারবেন।

সার্ভে কি? সার্ভে কিভাবে করা হয়?

Survey (সার্ভে) একটি ইংরেজী শব্দ, যার অর্থ হলো জরিপ বা পরিসংখ্যান। জরিপ বা পরিসংখ্যানের সাথে আমরা সবাই মোটামুটিভাবে পরিচিত। বিভিন্ন অললাইন পোর্টালে আজকাল পাঠকের “হ্যাঁ/না” ভোটের ব্যবস্থা থাকে। এগুলোই একপ্রকার সার্ভে বা জরিপ।

এছাড়াও, সরকারী বা বেসরকারী সংস্থার উদ্যোগে বিভিন্ন বিষয়ে পরিসংখ্যান করার জন্য (বিশেষ করে জনসংখ্যাসহ প্রভৃতি) দেশের শহর ও গ্রামের বাড়িতে বাড়িতে যেয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হয়৷ এগুলোও জরিপ বা সার্ভে এর উদাহরণ।

অনলাইন পেইড সার্ভে (Online Paid Survey) কি?

যে সকল অনলাইনভিত্তিক জরিপে অংশগ্রহণ করার বিনিময়ে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা প্রদান করা হয়, সেই জরিপগুলোকে অনলাইন পেইড সার্ভে বলে।

পৃথিবী প্রযুক্তিগত দিক দিয়ে অতি দ্রুত এগিয়ে চলেছে। বর্তমান সময়ের বিভিন্ন সংস্থা এবং প্রতিষ্ঠানগুলো এখন আর আগের মতো বাড়ি বাড়ি যেয়ে কোনো বিষয়ে জরীপ চালায় না। এখন অনলাইনে বিদ্যমান রয়েছে অনেক সার্ভে প্লাটফর্ম, যেগুলোতে সার্ভের আয়োজন করা হয়।

বলাবাহুল্য, বাড়ি বাড়ি গিয়ে জরীপ চালালে মানুষকে অনেকটা বাধ্য হয়েই জরীপে অংশ নিতে হতো। কিন্তু অনলাইনে এই বাধ্যবাধকতার প্রশ্নই যেহেতু নেই, তাহলে মানুষকে কিভাবে এসব সার্ভের প্রতি আগ্রহী করে তোলা যায়? এই সমস্যা থেকেই মূলত সার্ভের “পেইড” ভার্সনের ধারণাটা তৈরী হয়েছিল।

এখন প্রশ্ন হতে পারে, অনলাইনে সার্ভের আয়োজন করে এতো বিশাল পরিমাণ অংশগ্রহণকারীদের অর্থ প্রদান কি যেকোনো কোম্পানী বা সংস্থার জন্য আর্থিক ক্ষতি বা লস নয়?

উত্তর হলো, না। একদমই না। বাড়ি বাড়ি গিয়ে জরীপ করলে একটি কোম্পানি বা সংস্থাকে এরচেয়ে অনেক বেশি কাঠখড় পোড়াতে হয়। যেমন: বিপুল পরিমাণ জরীপকারীর বেতন ভাতা, সারা দেশজুড়ে (এমনকি কখনো কখনো বিদেশেও) জরীপ চালানোর জন্য যাতায়াত খরচ, জরীপে সহায়ক বিভিন্ন উপাদান ক্রয়ের খরচ, জরীপের পর তা হিসেব নিকাশের খরচ ইত্যাদি। এতো সব খরচের বিপরীতে অনলাইন পেইড সার্ভের আয়োজন করার খরচা অত্যন্ত নগণ্য।

আরও পড়ুন-

২০২১ সালের সেরা অনলাইন পেইড সার্ভে ওয়েবসাইটগুলোর তালিকা (Online paid survey website list)

বলে রাখা ভালো, এখানে উল্লেখিত সবগুলো সাইটে আমি কাজ করিনি। অনলাইনে বিভিন্ন ফোরাম ও ওয়েবসাইটে বিদ্যমান তথ্য সংগ্রহ করে এখানে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে, এগুলো সাইটের বিশ্বস্ততা এবং পেমেন্ট দিবে কিনা সেই ব্যাপারে নিশ্চিন্ত থাকতে পারবেন।

১) Viewpoint Panel (viewpointpanel.com)

অনলাইনে সার্ভে করে ইনকাম করার জন্য viewpointpanel সবচেয়ে ভালো ওয়েবসাইটগুলোর একটি। মোট ১৪ টি দেশের প্রায় দেড় লক্ষাধিক মানুষ এই সাইটের সক্রিয় সদস্য।

এই সাইটের রেজিস্ট্রেশন করার জন্য কাউকে কোনো এক্সট্রা ফি প্রদান করতে হয় না। সম্পূর্ণ ফ্রিতেই খুব সহজে এখানে রেজিস্ট্রেশন করা যায়।

একাউন্ট তৈরীর পর পরই viewpointpanel তাদের নতুন সদস্যের কাছে ইমেইলের মাধ্যমে সার্ভে অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণবার্তা পাঠিয়ে দেয়। তাদের প্রত্যেক সার্ভের রেট সাধারণত ০.৫০ হতে সর্বোচ্চ ১০ ডলার পর্যন্ত হয়ে থাকে।

Viewpounpanel থেকে সর্বনিম্ন ১২.৫০ টাকা পেআউট করা যায়। এদের পেমেন্ট প্রসেস আপাতত পেপাল কেন্দ্রিক।

২) Opinion Now (opinionnow.in)

Opinionnow একটি ভারত কেন্দ্রিক পেইড সার্ভে সুবিধা প্রদানকারী ওয়েবসাইট হলেও বিশ্বের যেকোনো প্রান্তের মানুষ এখানে যুক্ত হয়ে টাকা ইনকাম করতে পারে।

মূলত এই সাইটটি ব্যবহার করে বিভিন্ন দেশী বিদেশী প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের পণ্য অথবা সেবার মান যাচাই করার জন্য সাধারণ মানুষের মন্তব্য জানার আশায় সার্ভের আয়োজন করে থাকে।

এসব সার্ভেতে অংশগ্রহণকারীদের জন্য তারা স্বল্প কিছু কয়েন বা বখশিশের ব্যবস্থা রাখে। আলাদা আলাদাভাবে একেকটি প্রতিষ্ঠানের সার্ভের বখশিশকে হিসেব করলে এর পরিমাণ অত্যন্ত স্বল্প হলেও একাধিক সার্ভেতে অংশ নিলে এই স্বল্প আর স্বল্প থাকে না।

এই ওয়েবসাইটে পেইড সার্ভে অংশ নিয়ে অর্জিত অর্থ Paytm এবং বিভিন্ন কুপোন কোডের মাধ্যমে উইথড্র করা যায়। বলাবাহুল্য, ওয়েবসাইটটি ভারতকেন্দ্রিক হওয়ায় আপনি একজন ভারতীয় নাগরিক হয়ে থাকলে বেশি সুবিধা পাবেন।

৩) ySence.com

পেইড সার্ভের জন্য খ্যাত আরো একটি ওয়েবসাইটের নাম হলো Ysence। সার্ভে সম্পর্কিত এই ওয়েবসাইটটি অন্যান্য সাইটের তুলনায় একটু বেশিই সক্রিয়। এখানে সারাদিনে ততোধিক সংখ্যক নতুন নতুন সার্ভের আয়োজন করা হয়ে থাকে। তাই প্রচুর কাজ পাওয়া যায়। এখানে প্রতিটি সার্ভেতে অংশগ্রহণের জন্য ০.২ থেকে ২ ডলার পর্যন্ত সম্মানী দেওয়া হয়ে থাকে।

এই সাইটটি সার্ভের জন্য জনপ্রিয় হলেও গেম খেলা, ছোট ছোট অর্ডার (যেমন কোনো সাইটে রেজিস্ট্রেশন করা), ভিডিও দেখাসহ নতুন নতুন বিষয় রিলিজ করা হয়। সার্ভের পাশাপাশি এসব কাজ কমপ্লিট করলেও টাকা পাওয়া যায়।

বুঝতেই পারছেন, এই সাইটিটির বিস্তৃতি খুবই বেশি। এখানে একাধারে বিভিন্ন সেক্টরকে একীভূত করায় প্রচুর কাজের চাহিদার সৃষ্টি হয়েছে। আপনি ধৈর্য্য ধরে এই সাইটে যত বেশি সময় ব্যয় করবেন, দিন শেষে আপনার পকেটে ঠিক তত টাকাই ঢুকবে।

Ysence এর পেমেন্ট মেথড পেপাল এবং পেওনিয়ার কেন্দ্রিক। আপনি নিশ্চয়ই জানেন, পেওনিয়ার থেকে টাকা উত্তোলন বাংলাদেশীদের জন্য বেশ সহজ। তাই, এই সাইটে সক্রিয় বাংলাদেশীর পরিমাণ তুলনামূলকভাবে একটু বেশি।

৪) Neobux.Com

NeoBux পেউড সার্ভের জন্য যতটা না পরিচিত, তার চেয়ে অনেক বেশি জনপ্রিয় পে টু ক্লিক বা পিটিসি সাইট হিসেবে। এমনকি অনেকেই এটাও জানে না যে, NeoBux এ সার্ভে করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করার সুযোগ রয়েছে।

এদের আরো একটি সুবিধাজনক বৈশিষ্ট্য হলো, এখানে রেফার করার সিস্টেম রয়েছে। অর্থাৎ, আপনার সাজেশনে কেউ এই সাইটে জয়েন করে কাজ শুরু করলে আপনি তার পাশাপাশি আপনিও টাকা পাবেন।

এই ওয়েবসাইটটি অনেক পুরাতন হওয়ায় বেশি বিশ্বাসযোগ্য। এমন অনেকে আছেন, যারা অনলাইনে ইনকামের ব্যাপারে সম্পূর্ণভাবে NeoBux এর উপর নির্ভরশীল।

NeoBux এর পেমেন্ট সিস্টেম Neteller, PayPal বা Payza কেন্দ্রিক। এখানে এ্যাকাউন্ট খোলার সময়ই NeoBux আপনাক মনে করিয়ে দেবে, Neteller অথবা PayPal এ এ্যাকাউন্ট না থাকলে কোনোভাবেই উপার্জিত টাকা উত্তোলন করতে পারবেন না।

অদ্ভুত ও বিষ্ময়কর কিছু পড়ে নিন-

৫) Toluna.com

এটি আরো একটি জনপ্রিয় ও সক্রিয় Online paid survey সুবিধা প্রদানকারী ওয়েবসাইট। এই সাইটের সার্ভেগুলো মূলত পয়েন্টকেন্দ্রিক। কোনো একটি সার্ভেতে অংশ নিলে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণ পয়েন্ট পাবেন। এই পয়েন্টগুলো ভাঙ্গিয়েই পরবর্তীতে ডলারে রুপান্তর করতে পারবেন।

এই সাইটের কোন সার্ভেতে অংশে নিয়ে আপনি কত টাকা পেতে চলেছেন, তা নির্ভর করবে সেই সার্ভেটি কত বড়, তার উপর। এখানকার একেকটি সার্ভে যত বেশি বড় হবে, আপনি ততই বেশি পয়েন্ট পাবেন।

শুধুই সার্ভে নয়, এই সাইটে পয়েন্ট অর্জন করার জন্য আরো অনেকগুলো পথ খোলা রয়েছে। সেগুলো কমপ্লিট করার মাধ্যমেও আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তাদের পেমেন্ট মেথড মূলত পেপাল কেন্দ্রিক।

৬) Swagbucks.Com

SwagBucks সবচেয়ে বিস্তৃত পেইড সার্ভে সুবিধা প্রদানকারী ওয়েবসাইটগুলোর একটি। ২০২০ সাল পর্যন্ত ৫০ কোটি মার্কিন ডলারেরও বেশি অর্থ তারা তাদের মেম্বারদের পকেটে ঢোকাতে সাহায্য করেছে এবং একটি পরিসংখ্যান অনুযায়ী তারা দৈনিক প্রায় ৭ হাজারের বেশি অ্যামাজন গিফট কার্ড বিলিয়ে থাকে।

এটি সম্পূর্ণরূপে একটি ব্র‍্যান্ড ওয়েবসাইট। এদের নিজস্ব একটি অ্যাপও রয়েছে। ওয়েবসাইট এবং অ্যাপ – উভয় মাধ্যমেই আপনি তাদের সাথে কাজ করতে পারবেন।

অনলাইন পেইড সার্ভের পাশাপাশি তাদের কাজের ব্যাপকতা আরো বেশি বিস্তৃত। বিজ্ঞাপনে ক্লিক করা এবং ভিডিও দেখা থেকে শুরু করে নানা কাজের মাধ্যম এখান থেকে টাকা ইনকাম করা যায়। এমনকি অনলাইন শপিং করেও আলাদাভাবে টাকা আয় করা যায় এখান থেকে।

Swagbucks হতে আয় করা টাকা দিয়ে পেপালের মাধ্যমে খুব সহজেই উইথড্র করা যায়। এছাড়াও, আপনি আপনার টাকা দিয়ে অ্যামাজন গিফট কার্ড নিতে পারবেন।

৭) PrizeRebel (www.prizerebel.com)

PrizeRebel অত্যন্ত বিশ্বস্ত ও পুরাতন ওয়েবসাইটগুলোর একটি। এই সাইটটির বয়স প্রায় ১০ বছর হতে চলল। কিন্তু কোনো মেম্বার তাদের বিরুদ্ধে অর্থ কারচুপি বা এই সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ এখন পর্যন্ত আনেনি।

বিভিন্ন অনলাইন মুক্ত ফোরামে চোখ বুলালেই দেখা যায় PrizeRebel এর প্রতি সাধারণ মানুষের প্রশংসাবাক্য। সাইটটি এ পর্যন্ত প্রায় ১ কোটি মার্কিন ডলার তাদের মেম্বারদের পেমেন্ট করেছে।

এই সাইটে সার্ভে করার পাশাপাশি গেম খেলে অর্থ উপার্জন করা যায়। শুধু তাই নয়, এখানে আছে রেফার করার বিশেষ ফিচার। এখানে কাজ করলে ভার্চুয়াল কয়েন প্রদান করা হয়। একেকটি কয়েন এক ডলার সমমূল্যের হয়ে থাকে।

সামান্য কিছু কয়েন জোগাড় হয়ে গেলেই আপনি তা ডলারে কনভার্ট করে উইথড্র করতে পারবেন। এদের পেমেন্ট প্রসেস মূলত পেপাল নির্ভর। তবে, এছাড়াও বিভিন্ন ধরণের গিফট কার্ড (যেমন গুগল, অ্যামাজন, রিব্লক্সের) প্রদান করা হয়ে থাকে।

অনলাইন সার্ভে করে আয় করতে কি কি থাকা দরকার? (Earn money through online paid survey)

অনলাইন সার্ভে কি এবং অনলাইন সার্ভের বিভিন্ন ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানার পর, জানতে হবে অনলাইন সার্ভে করার জন্য কি কি থাকা প্রয়োজন।

অনলাইন সার্ভে করে টাকা আয় (earn money through online paid survey) করার জন্য প্রথমেই একটি ইন্টারনেট সংযোগ যুক্ত কম্পিউটার অথবা স্মার্টফোনের প্রয়োজন পড়বে। বলে রাখা ভালো, আপনি সিম বা ওয়াইফাই যা-ই ব্যবহার করুন না কেন, নেটওয়ার্ক অত্যন্ত ভালো হতে হবে।

কেননা, বেশিরভাগ পেইড অনলাইন সার্ভে সুবিধাপ্রদানকারী ওয়েবসাইটগুলোতে আপনি প্রতিদিন একটি নির্ধারিত সংখ্যক সার্ভেতে অংশগ্রহণের অনুমতি পাবেন। এই গুটিকয়েক সার্ভের ভোটিং চলাকালীন সময়ে যদি আপনার নেটওয়ার্কে সমস্যা হয়, তবে দেখবেন, টাস্ক ইনকমপ্লিট দেখাচ্ছে; যা আর নতুন করে কমপ্লিট করা যাবে না। এবং ওটার জন্য কোনো পয়েন্টও আপনি পাবেন না। এই সমস্যাটি আমাকে বিভিন্ন সময়ে ভীষণভাবে ভুগিয়েছে।

ভিপিএন ব্যবহার করে অনলাইনে পেইড সার্ভে করে আয় করার কৌশল

ইন্টারনেট সংযোগযুক্ত স্মার্ট ডিভাইসের পর আপনাকে সেই ডিভাইসটিতে উন্নত দেশগুলোর সার্ভারযুক্ত ভিপিএনের প্রয়োজন পড়বে। ভিপিএন থাকলে আপনি মোটামুটি ভালো পরিমাণ সার্ভেতে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন।

প্রকৃতপক্ষে, বাংলাদেশ প্রযুক্তিগত দিক থেকে এখনো অনেক পিছিয়ে রয়েছে। এদেশের প্রতিষ্ঠানগুলো অনলাইনে সার্ভের আয়োজন করে তাদের পণ্যের ব্যাপারে নেটিজেনদের মতামত জানতে তেমন আগ্রহী নয়। এজন্য, ভিপিএন ব্যবহার করে নিজের দেশের আইপি পরিবর্তন করে যদি সার্ভে প্লাটফর্মগুলোতে প্রবেশ করা যায়, তবে তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি ইনকাম করা যাবে।

এরজন্য পেইড ভিপিএন ব্যবহার করে পেইড আইপি জোগাড় করা বুদ্ধিমানের কাজ হবে। যারা অনলাইনে নিয়মিত বিভিন্ন সার্ভেতে অংশ নিয়ে টাকা ইনকাম করে, তাদের অধিকাংশই মূলত পেইড আইপি ব্যবহার করে থাকে।

এছাড়াও, ইংরেজী ভাষা সম্পর্কে পর্যাপ্ত জ্ঞান থাকলে ভালো। যদি না থাকে, তবে বিভিন্ন সময়ে সার্ভেতে কি বলা হয়েছে, তা বুঝতে ট্রান্সলেটর ব্যবহার করতে হতে পারে।

প্রয়োজন মনে হলে পড়ে নিতে পারেন-

ভিপিএন কি? ডিজিটাল নিরাপত্তার প্রয়োজনে ভিপিএন এর ব্যবহার

— শেষকথা —

ঘরে বসে ঘন্টাখানেক একটু মোবাইল টিপাটিপি, বিনিময়ে টাকা – এই কথাটি যদি আপনার কাছে লোভনীয় শোনায়, তারা অনুগ্রহ করে এখনই কাজ শুরু করে দিন। উপরে উল্লেখিত সাইটগুলোতে এ্যাকাউন্ট তৈরী করুন এবং সুবিধা অনুযায়ী কিছু সাইটে যথা সম্ভব সক্রিয় থাকুন।

কিন্তু যাদের নির্দিষ্ট কোনো সেক্টরের ভালো জ্ঞান রয়েছে, তাদের এদিকে না যাওয়াই ভালো। কেননা, অনলাইন পেইড সার্ভে (Online paid survey) কাজে নতুনত্ব থাকে না। মেধা বিকাশের সুযোগ কম এবং ইনকাম লিমিটেড।

সম্পাদকের বাছাই –

Leave a Reply