অ্যামাজনে ড্রপশিপিং ব্যবসা করার নিয়ম

অনলাইন খুচরা বাজারের সবচেয়ে বড় ব্র্যান্ড অ্যামাজন। এই ইকমার্স সাইটটির কিছু কাঠামোগত গুণাবলী আছে যেগুলো তাকে ড্রপশিপিং ব্যবসার অনুকূল একটি প্লাটফর্ম হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছে। অ্যামাজন বিশ্বের অনলাইন বাজারের বিরাট একটি অংশকে নিয়ন্ত্রণ করে। ক্রেতাদের মাঝে তাদের পণ্য ও সেবার যথেষ্ট সুনাম আছে। আপনি একজন ব্যবসায়ী হিসেবে, অ্যামাজনে ড্রপশিপিং একাউন্ট খুলে এই বিষয়গুলোর সুবিধা নিতে পারেন।

অ্যামাজনে ড্রপশিপিং করার সুবিধা

অ্যামাজন যখন তার পণ্য কেনে, একসাথে বিপুল পরিমাণ পণ্য সে নিয়ে থাকে সাপ্লাইয়ারদের কাছ থেকে। যে কারণে তাদের কোম্পানীর প্রায় দানবীয় সব ওয়্যারহাউজ আছে। এবং তার চেয়েও বড় কথা অ্যামাজনের এই ওয়্যারহাউজগুলো বিশ্বময় ছড়ানো। অর্থাৎ, আপনি যদি অ্যামাজনের সাথে ড্রপশিপিং করেন তাহলে আপনার ছোট ব্যবসাই দ্রুত বৃদ্ধি পাবে, এবং আপনি বিশ্বজুড়ে ব্যবসা করতে পারবেন।

অ্যামাজনের সাথে আরেকটি সুবিধা হচ্ছে, প্রত্যেক মাসে, বিশ্বজুড়ে প্রায় ১৯৭ মিলিয়ন মানুষ বিভিন্ন ডিভাইস থেকে অ্যামাজনে এসে থাকেন। এবং করোনা, লকডাউন ইত্যাদি কারণে এই সংখ্যাটি বাড়তির দিকে। সুতরাং, অ্যামাজনে ড্রপশিপিং করলে আপনি একটি বিশাল সংখ্যক ক্রেতার কাছে নিজের পণ্যকে, তথা আপনার ব্র্যান্ডকে উপস্থাপন করতে পারছেন।

আপনার পণ্য যদি ভালো হয়, এবং সঠিক ব্যবসায়িক কৌশলে যদি অগ্রসর হন, তাহলে এখানে আপনি যথেষ্ট মুনাফা করতে পারবেন। আর যেহেতু ইতিমধ্যেই আপনার পণ্যের বহু সম্ভাব্য ক্রেতা অ্যামাজনে বিদ্যমান, তাই বিজ্ঞাপনের পেছনে আপনাকে খুব বেশী খরচও করতে হবে না। আপনি যদি পেজকে সঠিকভাবে অপটিমাইজ করতে পারেন, তাহলে বিজ্ঞাপন না দিয়ে, এমনিতেই আপনি অর্গানিক ট্রাফিক পাবেন।

আরও পড়ুন-

অ্যামাজনের ড্রপশিপিং করার অসুবিধা

তবে ড্রপশিপিং প্লাটফর্ম হিসেবে অ্যামাজনকে বেছে নেয়ার আগে একটা বিষয় বুঝতে হবে আপনাকে। সেটি হচ্ছে ব্যবসায়ীদের জন্য অ্যামাজনের ইতিমধ্যেই একটি নিজস্ব সেবা আছে। এবং তৃতীয় পক্ষের সাপ্লাইয়ার দিয়ে যারা ব্যবসা করে, অর্থাৎ ড্রপশিপাররা, তাদের তুলনায় নিজেদের ব্যবসায়ীদের বেশী প্রাধান্য দেয় অ্যামাজন।

অ্যামাজনে ড্রপশিপিং করার একটি প্রধান সমস্যা হল অ্যামাজন এফবিএ। অ্যামাজন এফবিএ (Amazon FBA) বা ফুলফিলমেন্ট বাই অ্যামাজন ব্যবসায়ীদের জন্য অ্যামাজন কোম্পানীর একটি সেবা। ব্যবসায়ীরা অর্থের বিনিময়ে অ্যামাজনের এই সেবা ব্যবহার করতে পারেন।

স্বাভাবিকভাবেই যে ব্যবসায়ীরা অ্যামাজনের এই সেবা ব্যবহার করেন, অ্যামাজন তাদের সর্বোচ্চ গুরুত্ব ও সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে। ফলে এদের সাথে প্রতিযোগিতা করতে কিছু সমস্যা হবে আপনার।

অ্যামাজন এফবিএ’র খরচ বেশী

কিন্তু, যারা অ্যামাজন এফবিএ ব্যবহার করেন তাদেরকে প্রথমেই অ্যামাজনের পেছনে বেশ খানিকটা টাকা খরচ করতে হয়। আপনি যদি প্রায় শূন্য হাতে ব্যবসা শুরু করার কথা ভেবে থাকেন সেক্ষেত্রে অ্যামাজন এফবিএ আপনার জন্য নয়। আপনি ড্রপশিপিং দিয়ে শুরু করুন বা করতে হবে আপনাকে।

ছোট ব্যবসায়ীদের জন্য ড্রপশিপিং প্লাটফর্ম হিসেবে অ্যামাজন অবশ্যই ভাল। কারণ, মান নিয়‌ন্ত্রণের বিষয়ে গোটা অনলাইন খুচরা বাজারে অ্যামাজনের সমকক্ষ কেউ নেই। ছোট ব্যবসায়ী হিসেবে, অ্যামাজনে ড্রপশিপিং করলে আপনি আপনার ব্র্যান্ডকে গড়ে তোলার মত একটি দিকনির্দেশনা পাবেন।

অ্যামাজনে ড্রপশিপিং করার সাধারণ শর্ত

অ্যামাজনের ড্রপশিপিংয়ের শর্তগুলো অনেকে বুঝতে পারেন না বলে ভাবেন অ্যামাজন মনে হয় ড্রপশিপিং করতে দিচ্ছে না। কিন্তু, এক্ষেত্রে ব্যাপারটা হচ্ছে- আপনি যদি ওয়ালমার্ট বা ই-বে থেকে কমদামে পণ্য কিনে সেটি অ্যামাজন মারফত বেশী দামে বিক্রী করার চেষ্টা করেন, তাহলে অ্যামাজন আপনাকে বাধা দিবে।

কিন্তু আপনি একটি স্বতন্ত্র তৃতীয় পক্ষ হিসেবে, অ্যামাজনের ক্রেতাদের অর্ডার ঠিকঠাকভাবে পূর্ণ করে দিবেন -এই বিষয়টিতে কোনই বাধা নেই। সমস্ত পণ্যের প্যাকেজে এবং সংযুক্ত শিপিং স্লিপগুলোতে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটির নাম থাকলেই চলবে।

অ্যামাজনের টার্মস অফ সার্ভিস বা সেবা গ্রহণের শর্তাবলী অনুসারে, আপনাকে হতে হবে “সেলার অফ রেকর্ড”। অর্থাৎ আপনি যদি অ্যামাজনের প্রতিদ্বন্দী কোন কোম্পানী যেমন, টার্গেট বা ওয়ালমার্টকে ব্যবহার করেন, তাহলে আপনার একাউন্ট অ্যামাজন বন্ধ করে দিতে পারে।

আরও পড়ুন –

যেভাবে অ্যামাজনে ড্রপশিপিং করবেন

অ্যামাজনে ড্রপশিপিং ব্যবসা করার জন্য আপনাকে নিচে উল্লেখিত বিষয়গুলো ভালোভাবে জানতে ও বুঝতে হবে। তবে আসুন জেনে নিই কিভাবে, কি কি পদ্ধতি প্রয়োগ ও ব্যবহার করে অ্যামাজনে ড্রপশিপিং ব্যবসা করা যায়।

সেলার একাউন্ট

প্রথমে আপনাকে একটি পেশাদার অ্যমাজন সেলার একাউন্ট করতে হবে। মানে, একজন বিক্রেতা বা ব্যবসায়ী হিসেবে নাম লেখাতে হবে অ্যামাজনে। এক্ষেত্রে ফি প্রদান করে একটি প্রো একাউন্ট করে নেয়াই ভাল। কারণ, ফ্রি বা বিনামূল্যে একাউন্ট করলে, আপনার ব্যবসার বৃদ্ধিতে সমস্যা হবে।

আপনার ড্রপশিপিং ব্যবসা একটু সচল হয়ে উঠলেই আপনি ফ্রি একাউন্ট দিয়ে সমস্তটা সামাল দিতে পারবেন না। তাছাড়া, আপনার একাউন্ট ফ্রি হলে অ্যামাজনের প্ল্যাটফর্মে অনেকগুলো ক্যাটাগরীতেই আপনি পণ্য বিক্রয় করতে পারবেন না।

ইউপিসি কোড

আপনাকে সব পণ্যের জন্য ইউপিসি কোড বা ইউনিভার্সাল প্রোডাক্ট কোড যোগাঢ় করতে হবে। এই কাজটি করার জন্য অনলাইনে অনেক সার্ভিস পাওয়া যায়। এবং তত্ত্বগত ভাবে সেবাগুলোর যে কোন একটি গ্রহণ করেই আপনি পণ্যের ইউনিভার্সাল প্রোডাক্ট কোড তৈরী করে নিতে পারেন। কিন্তু এক্ষেত্রে দুই নম্বরী প্রতিষ্ঠান রয়েছে অনেক। তাদের কোড ব্যবহার করলে অ্যামাজন আপনার পণ্য গ্রহণ করবে না।

যে কোন মানসম্মত বাজার থেকে পণ্য ক্রয় করলে পণ্যের গায়ে যে ‘বারকোড’ দেখা যায় ওটাই ইউপিসি কোড। বিশ্বে, বিক্রয়যোগ্য প্রতিটি পণ্যকে একটি ট্রেড আইটেম নাম্বার বা বাণিজ্যিক পণ্য নম্বর প্রদানের চেষ্টা করা হয়। ইউপিসি এই নম্বরেরই এক ধরণের প্রকাশ। এই ইউপিসি নম্বরের বৈধতা দিতে পারে একমাত্র একটি প্রতিষ্ঠান। সেটি হচ্ছে- জি এস ওয়ান বা গ্লোবাল স্ট্যান্ডার্ড ওয়ান। তা ব্যতীত অন্য কোন তৃতীয় পক্ষ থেকে সস্তায় ইউপিসি কোড কিনলে আপনি ঝামেলায় পড়ে যেতে পারেন।

এই বিষয়ে অ্যামাজন বলছে-

“ আমরা একটা পণ্যের ইউপিসি কোডের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য গ্লোবাল স্ট্যান্ডার্ড ওয়ানের ডেটাবেজের সাহায্য নিয়ে থাকি। তাদের ডেটাবেজে পাওয়া না গেলে বা তথ্যে অমিল থাকলে ইউপিসি কোডটিকে বাতিল কি নকল গণ্য করা হতে পারে। আমাদের পরামর্শ, আপনারা আপনাদের ইউপিসি কোডগুলো সরাসরি জি এস ওয়ানের কাছ থেকে ক্রয় করুন। তৃতীয় যেসব পক্ষ ইউপিসি লাইসেন্স বিক্রী করে তাদের কাছ থেকে নয়। তাহলেই, পণ্যের সঠিক তথ্য গ্লোবাল স্ট্যান্ডার্ড ওয়ানের ডেটাবেজে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারবেন।”

সাপ্লাইয়ার নির্বাচন

ড্রপশিপিং ব্যবসা করতে হলে আপনার সাপ্লাইয়ার তো লাগবেই। কিন্তু এই সাপ্লাইয়ার অ্যামাজনের প্রতিযোগী কোম্পানী বা বিগ বক্স সাপ্লাইয়ারদের কেউ হলে চলবে না। যেমন, আলিবাবা এক্সপ্রেস, ই’বে, ওয়ালমার্ট, ফ্লিপকার্ট, জিংডং ইত্যাদি।

প্রোডাক্ট রিসার্চ

অ্যামাজনে কি ধরণের প্রোডাক্ট বিক্রী হয় বেশী সেটি নিয়ে কিছু গবেষণা করে নিন প্রথমে। এজন্য ইন্টারনেটে (গুগল, ইউটিউব, ইয়াহু, ক্বোরা) পড়াশোনা করতে পারেন। মোটামুটি একটি ধারণা পাবেন তাহলে। তাছাড়া প্রোডাক্ট রিসার্চের অনেক ধরণের টুলসও রয়েছে। এসবের সাহায্য নিয়েও আপনি পণ্য বাছাই করতে পারেন।

একটা জিনিস মনে রাখা দরকার। যারা অ্যামাজনে ড্রপশিপিং বিজনেস করবেন, তাদের জন্য জনপ্রিয় নিশে গুলো নিয়ে ব্যবসা করা বেশ কঠিনই হবে। কারণ ইতিমধ্যেই এইসব নিশেগুলোতে ভাল করেছেন ও প্রতিষ্ঠা পেয়ে গেছেন এমন ব্যবসায়ীরা রয়েছেন অ্যামাজনে। সুতরাং, তুলামূলক স্বতন্ত্র, কম প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ ও সংকীর্ণ কোন নিশে নিয়ে কাজ করলে ভালো হয়। সৃজনশক্তি ব্যবহার করলেই দেখবেন যে, এমন অনেক পণ্যই রয়েছে যেগুলোর ক্ষেত্রে আপনার অনন্যতা পাওয়া সম্ভব।

পুঁজি

অ্যামাজনে ড্রপশিপিং করতে আপনার খরচ অবশ্যই গতানুগতিক পরিসরে ব্যবসা করার থেকে কম হবে। কিন্তু তাই বলে, একেবারেই কোন পুঁজি না থাকলে একটা সমস্যা। কারণ অ্যামাজন ব্যবসায়ীদের টাকা পরিশোধ করতে কিছুটা সময় নিয়ে থাকে। সুতরাং প্রথম কয়েক মাস ব্যবসা টিকিয়ে রাখার মত টাকা পয়সা আপনার হাতে থাকতে হবে।

ক্রেতার কাছে পণ্য পৌঁছানো ও মান নিয়ন্ত্রণ

অ্যামাজনের ক্রেতারা বরাবরই দ্রুত পণ্য হাতে পেয়ে অভ্যাস্ত। সুতরাং, আপনি যে সাপ্লাইয়ারকে নিবেন, তিনি দ্রুত পণ্য পৌঁছে দিতে পারবে কিনা আপনার সেবাগ্রহীতা বা ক্লায়েন্টদের কাছে সেটি প্রথমেই নিশ্চিত হয়ে নিন।

অ্যামাজন এই বিষয়টির হিসাব রাখে। কোন ড্রপশিপার কত দ্রুত বা দেরীতে পণ্য পৌঁছে দেয় সেগুলি অ্যামাজন আপনার একাউন্টে ক্রেতাদের দেখাবে। অ্যামাজনের প্রদর্শিত হিসাব নিকাশগুলো যদি ভালো না হয় তাহলে ক্রেতারা আপনার কাছে থেকে পণ্য ক্রয় করতে খুব একটা আগ্রহী হবেন না।

মান নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে অ্যামাজন খুবই কড়া। যদি দেখা যায়, আপনার বিক্রয় করা পণ্যের ভেতরে বেশীরভাগ পণ্যই ফেরত পাঠিয়ে দিচ্ছেন ক্রেতারা, তাহলে তাদের হিসাবনিকাশ বা মেট্রিক্সগুলোতে আপনার খুবই করুণ অবস্থা হবে। সেক্ষেত্রে আপনাকে তাদের প্লাটফর্ম থেকে বহিঃস্কার করে দিতে পারে।

প্রোডাক্ট লিস্টিং

অ্যামাজন প্রোডাক্ট লিস্টিং বলতে বোঝায় আপনি যেসব পণ্য অ্যামাজনে বিক্রী করেন সেগুলোর প্রোডাক্ট পেজ। এই পেজে আপনার পণ্যের সমস্ত তথ্য থাকে। পন্যের টাইটেল, ছবি, বর্ণণা এবং দাম। একজন ড্রপশিপার হিসেবে আপনি কিভাবে এই লিস্টিং তৈরী করলেন এবং সাজালেন সেটিই ঠিক করে দিবে কতগুলো পণ্য বিক্রয় করতে সক্ষম হবেন আপনি।

আপনার সাফল্যের সুযোগ বৃদ্ধি করার জন্য, নিশ্চিত করুন যে আপনার একাউন্টে প্রচুর পরিমাণে পণ্য লিস্ট করা আছে। দ্বীতিয়তঃ আপনার পণ্য লিস্ট করতে হবে গোছানো এবং সুশৃঙ্খলভাবে। টাইটেলগুলি বোল্ড অক্ষরে লিখুন। কি বিক্রী করছেন তা পরিষ্কার করে লিখুন। যে বিবরণ বা ডেসক্রিপশানটি লিখবেন সেটি যেন পেশাদার সেলস কপির মত হয়।

আপনার পণ্যকে ক্রেতার কাছে সঠিকভাবে উপস্থাপনের জন্য হাই-কোয়ালিটি ছবি ব্যবহার করুন। দায়সারা গোছের ছবি ব্যবহার করে পণ্য বিক্রী করতে পারবেন না। মনে রাখবেন, অনলাইনে ক্রেতার কখনই সামনা সামনি পণ্যটিকে দেখার সুযোগ নেই। ছবি দেখে, লেখা পড়েই তারা পণ্য ক্রয় করবেন।

ড্রপশিপার হিসেবে আপনি হয়তো পিপিসি এ্যাডস বা পে পার ক্লিক বিজ্ঞাপন সেভাবে ব্যবহার করতে পারবেন না নিজের পণ্যের জন্য। কারণ অ্যামাজন এই ক্ষেত্রে ফুলফিলমেন্ট বাই অ্যামাজন ব্যবহারকারী ব্যবসায়ীদের প্রাধান্য দেয়। সুতরাং, আপনার প্রধান উপায় হচ্ছে আপনার প্রোডাক্ট পেজটিকে ভালভাবে অপটিমাইজ করা।

পণ্যের ধরণ

অ্যামাজনে ড্রপশিপিং করার পণ্য বাছাই করার সময় আপনাকে খুব সতর্ক থাকতে হবে। কারণ সবধরণের পণ্যের ড্রপশিপিং যোগ্যতা নেই এই প্লাটফর্মে। এমন একটি নিশে ব্যবহার করুন যেখানে ক্রেতারা অনুরাগ এবং সুনির্দিষ্টতার সাথে পণ্য ক্রয় করে থাকেন। যার অর্থ আপনার পণ্য পাওয়ার জন্য স্বাভাবিকের চেয়ে একটু দেরী তারা সহ্য করতে পারবেন।

এমন একটা নিশে যদি আপনি বেছে নেন, যেটার পণ্য সব জায়গায় সব সময়ই পাওয়া যাচ্ছে, সেক্ষেত্রে অ্যামাজন এফবিএ ব্যবহারকারী ব্যবসায়ীদের সাথে আপনি প্রতিযোগিতায় টিকতে পারবেন না। এর কারণ মূলত এই যে, এফবিএ ব্যবহারকারীদের শিপিং টাইম হবে আপনার তুলনায় অনেক দ্রুত।

অধিকাংশ অ্যামাজন ড্রপশিপাররাই শেষ পর্যন্ত এফবিএ প্রোগ্রামে চলে আসেন। ড্রপশিপিং ব্যবহার করেন তারা মূলতঃ ব্যবসার প্রাথমিক পর্যায়ে। ড্রপশিপিং করার মাধ্যমে, একটি পণ্য বাজারে কিরকম গ্রহণযোগ্যতা পেতে পারে, সেই বিষয়ে একটি আন্দাজ পাওয়া যায়। যদি দেখেন যে আপনারা পণ্যটি ভালোই চলবে, তখন আপনি অ্যামাজন এফবিএ তে চলে যেতে পারেন।

অ্যামাজনের দ্রুত গতির শিপিং, বিজ্ঞাপন এবং অন্যান্য বিভিন্ন সুবিধা তখন ব্যবহার করা সম্ভব হবে আপনার জন্য। আপনার হাতে যদি পুঁজি থাকে ভালো পরিমাণে, তাহলে এই মডেলে ব্যবসা করে অ্যামাজনের প্লাটফর্মের ভেতরেই ব্যবসায়িক প্রতিযোগিতায় এগিয়ে থাকতে পারেন।

আর যদি, আপনি ড্রপশিপিংয়েই থাকতে চান, তাহলে ক্রেতাদের এমন বিশেষ কিছু একটা বা বাড়তি কিছু দেয়ার চেষ্টা করুন, যেন তারা সময় বেশী লাগলেও আপনার কাছ থেকেই কিনতে চান। হতে পারে আপনি প্রতিটি পণ্যের সাথেই ফ্রিতে কিছু দিচ্ছেন। এই চর্চাটি সবসময়ই কাজ করে।

শেষ কথা এটাই বলব যে, অ্যামাজনের সাথে ড্রপশিপিং করার সময় কপিরাইট এবং ট্রেডমার্ক বিষয়ে খুব সতর্ক থাকবেন। কারণ সেরকম ঝামেলা হলে এবং কোন বড় কোম্পানী যদি আপনার বিরুদ্ধে ব্র্যান্ড চুরির অভিযোগ করে, অ্যামাজন আপনার ব্যবসা বন্ধ করে দিবে। সব শর্ত পূর্ণ করে যদি ব্যবসা করতে পারেন, তাহলে ড্রপশিপিং ব্যবসা চালানোর জন্য অ্যামাজন খুবই ভাল একটা প্লাটফর্ম। আপনি মেধা, শ্রম ও সততার সাথে কাজ করলে সাফল্য অবশ্যই পাবেন।

লিখেছেন : সালেহ মুহাম্মাদ

সম্পাদকের বাছাই –

Leave a Comment