ইউটিউব শর্টস থেকে আয় করার সহজ ও কার্যকরী উপায়

যে কেউ চাইলে খুব সহজেই YouTube Shorts বা ইউটিউব শর্টস থেকে আয় করতে পারে। ইউটিউব শর্টস কি? ইউটিউব শর্টস থেকে আয় করার উপায়, ইউটিউব শর্টস ফান্ড, শর্টস ফান্ড ক্লেইম করার উপায় ও ইউটিউব শর্টস তৈরির উপায়সমূহ নিয়ে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।


বর্তমানে YouTube Shorts ভিডিও বেশ জনপ্রিয়তা পাচ্ছে , ভবিষ্যতেও এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়তে থাকবে। এর প্রধানতম কারণ হলো, আমাদের ধৈর্য ধরে কিছু করা বা একটানা বেশ কিছুক্ষণ কিছু দেখার প্রবণতা খুবই কম!

ইন্টারনেটে আমাদের মনোযোগের গড় ব্যাপ্তি মাত্র ৭ সেকেন্ডের মতো। ইউটিউবে প্রতিদিন ৭ লাখ ২০ হাজারের মতো ভিডিও আপলোড করা হয়, যা একজন মানুষের দেখে শেষ করতে ৮২ বছরের মতো সময় লেগে যাবে!

এমনিতেই ধৈর্য্য কম, পাশাপাশি এতো সময়ও আমাদের নেই। অপরদিকে, আমাদের হাতে এখন হাজারটা অপশন রয়েছে। একটা ভালো না লাগলে মুহূর্তেই আমরা অন্য আরেকটায় যেতে পারি।

আর এ কারণেই খুবই কম সময়ের মধ্যে মানুষকে কিভাবে একটি কন্টেন্ট দেখানো যায় এবং কন্টেন্টের প্রতি আকৃষ্ট করা যায় সেই চিন্তাধারা থেকেই শর্ট ভিডিও এসেছে। তাই শর্ট ভিডিও গুলোতে ভিউয়ারস ধরে রাখার জন্য স্বল্প সময়ের মধ্যেই চমৎকার কিছু করতে হয়। এবং, এগুলোতে সাড়া’ও পাওয়া যায় বেশ।

টিকটক ও ইনস্ট্রাগ্রাম রিলস এর দিকে লক্ষ্য করলেই শর্টস ভিডিওর জনপ্রিয়তা অনুমান করা যায়। টিকটক, ইনস্ট্রাগ্রাম রিলসের জনপ্রিয়তা পরিলক্ষিত করে ও এগুলোর সাথে পাল্লা দিতে ইউটিউবও ইউটিউব শর্টস (YouTube Shorts) নামক শর্ট ভিডিও ফিচার এনেছে। যা স্বল্প সময়ের মধ্যেই ইউটিউবের জনপ্রিয় একটি ফিচারে পরিণত হয়েছে। এবং পাশাপাশি তৈরি করেছে আয়ের এক নতুন পথ।

আরও পড়ুন-

ইউটিউব শর্টস কি?

YouTube Shorts (ইউটিউব শর্টস) হলো ইউটিউব দ্বারা তৈরিকৃত একধরনের শর্ট ফর্মের ভিডিও শেয়ারিং ফিচার। যা ৬০ সেকেন্ড বা তার কম দৈর্ঘ্যের মধ্যে সীমাবদ্ধ। এটি পোট্রের্ট মোডে দর্শকদের সামনে ভিডিও উপস্থাপন করে থাকে।

শর্টসে লাইসেন্সকৃত মিউজিক ব্যবহার করা যায়। শর্টসের প্রতিক্রিয়া জানানোর জন্য এখানে কমেন্ট অপশনও রয়েছে। পাশাপাশি লাইক/ডিসলাইক ও সাবস্ক্রাইব অপশন তো রয়েছেই।

এটিকে টিকটকের অনুরূপও বলা যায়। ভারতে টিকটক ব্যান হয়ে যাওয়ার পর ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এটি Beta (কার্যক্ষমতা পরীক্ষা করা ও সমস্যা সনাক্ত করার প্রোগ্রাম) হিসেবে রিলিজ করা হয়েছিল। পরবর্তীতে ২০২১ সালের মার্চ মাসে মার্কিন যুক্তরাষ্টেও এটি Beta প্রোগ্রাম হিসেবে রিলিজ করা হয়। এবং, চূড়ান্তভাবে বিশ্বব্যাপী রিলিজ করা হয় ২০২১ সালের জুলাই মাসে। রিলিজ করার পর থেকে ইউটিউব শর্টস এখন পর্যন্ত ৫ ট্রিলিয়ন ভিউ অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে!

ইউটিউব শর্টস থেকে আয় করার উপায়

সাধারণত ইউটিউব ভিডিও থেকে আয় করতে মনিটাইজেশনের দরকার হয়। ইউটিউবে মনিটাইজেশন পাওয়া কিছুটা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। এদিক থেকে ইউটিউব শর্টসের বোনাস পয়েন্ট হলো – মনিটাইজেশন ছাড়াই ইউটিউব শর্টস ফান্ডের মাধ্যমে শর্টস তৈরি করে খুব সহজেই আয় করা যাবে।

পরবর্তীতে চ্যানেলের গ্রোথ বাড়লে ইউটিউবের সাধারণ নিয়ম অনুযায়ী ভিডিও আপলোড করে চ্যানেলের মনিটাইজেশন পাওয়ার পর আয় করা যাবে।

এছাড়াও ২০২১-২০২২ সালের জন্য নির্ধারিত শর্টস ফান্ড শেষ হলে কিভাবে শর্টস ক্রিয়েটরদের লং টার্ম মনিটাইজেশন দেওয়া যায় সে বিষয় কাজ করছে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ। এটি এখন তাদের টপ প্রায়োরোটি। কাজেই নিকট ভবিষ্যতে ইউটিউব শর্টস ভিউয়ারস ও ক্রিয়েটরসদের সংখ্যা বাড়বে একথা নিশ্চিতভাবেই বলা যায়।

আসুন জেনে নেওয়া যাক-

ইউটিউব শর্টস ফান্ড কি?

ইউটিউব শর্টস ফান্ড বা তহবিল হলো ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের একটি ফান্ড যা ২০২১-২০২২ সালের মধ্যে সবচেয়ে যোগ্য শর্টস ক্রিয়েটরদের উৎসাহ স্বরূপ অর্থ দিয়ে থাকবে। প্রতি মাসে ইউটিউব হাজার হাজার ক্রিয়েটরদের সাথে কন্টাক্ট করে ক্রিয়েটরদের ফান্ডের মাধ্যমে পুরস্কৃত করার জন্য।

ইউটিউব শর্টস ফান্ডের প্রধান দুইটি উদ্দেশ্য হলো-

১। শর্টস ক্রিয়েটরদের শর্টস তৈরিতে উৎসাহ দেওয়া।
২। সবচেয়ে বেশি এঙ্গেজিং ক্রিয়েটরদের থেকে ফিডব্যাক নিয়ে প্রোডাক্ট এক্সপেরিয়েন্স উন্নত করা।

ইউটিউব শর্টসের জন্য লং টার্ম মনিটাইজেশন চালু না করা অব্দি ইউটিউব শর্টস ফান্ড থেকে আয়ের সুযোগ থাকবে। কাজেই যারা ইউটিউবিং করার পরিকল্পনায় আছেন তাদের এ সুযোগ লুফে নেওয়া দরকার। শর্টস তৈরি করে স্বল্প পরিশ্রমেই চ্যানেল দাড় করানো যায়।

কারণ শর্টস তৈরিতে খুব কম সময় লাগে। এডিটিং এ বেশি সময় দিতে হয় না। অনেক বেশি ভিউজ ও সাবস্ক্রাইবার পাওয়া যায় পাশাপাশি শর্টস ফান্ডের বোনাস তো আছেই!

শর্টস ফান্ডের জন্য যেভাবে মনোনীত করা হয়

ক্রিয়েটরদের তাদের ক্রিয়েটিভ ও অরিজিনাল কন্টেন্ট তৈরির জন্য শর্টস ফান্ড থেকে প্রতি মাসে পূর্ববর্তী মাসের পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে বোনাস দেওয়া হয়ে থাকে। কাজেই শর্টস ফান্ড বোনাসের জন্য মনোনীত হতে চাইলে অবশ্যই ক্রিয়েটিভ ও অরিজিনাল শর্টস বানাতে হবে।

শর্টস থেকে আয় করতে ইউটিউব মনিটাইজেশন লাগবে না। ইউটিউব ফান্ড থেকে বোনাস দেওয়া হবে।

শর্টস ফান্ড বোনাসের জন্য নির্বাচিত হতে হলে আরো যা যা লাগবে-

  • চ্যানেলটিকে অবশ্যই ইউটিউব প্রদত্ত গাইডলাইনস, কপিরাইট রুলস এবং মনিটাইজেশন পলিসি মেনে চলতে হবে।
  • বিগত ১৮০ দিনের মধ্যে অন্ততপক্ষে একটি উপযুক্ত শর্টস আপলোড করা থাকতে হবে।
  • চ্যানেলের ভিডিওতে অন্য সোশাল মিডিয়া প্লাটফর্মের লোগো বা ওয়াটারমার্কস, নন অরিজিনাল ভিডিও উদাহরণস্বরূপ (মুভি ও টিভি শো’এর আন এডিটেড ক্লিপস) অথবা অন্য ক্রিয়েটরদের আপলোডকৃত ভিডিও আপলোড করলে সেই চ্যানেল ফান্ড বোনাসের জন্য অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।
  • অবশ্যই ক্রিয়েটরের বয়স ১৩ অথবা তার অধিক হতে হবে।
  • ১৩-১৮ বছর বয়সের ক্রিয়েটরদের অভিভাবককে অবশ্যই ইউটিউব টার্মস মানতে হবে। এবং, পেমেন্টের জন্য চ্যানেলে এডসেন্স একাউন্ট যুক্ত করা না থাকলে অবশ্যই তা যুক্ত করে নিতে হবে।

YouTube Shorts Bonus Claim করার পদ্ধতি

ইমেইলের মাধ্যমে অথবা ইউটিউব স্টুডিওর শর্টস ফান্ড পেজে গিয়ে Claim Bonus সিলেক্ট করে শর্টসের বোনাস দাবি করতে পারেন। ক্লেইম বোনাস সিলেক্ট করার পর দুইটি ধাপ কমপ্লিট করতে হবে –

১। বোনাস টার্মস একসেপ্ট করতে হবে।
২। একটি গুগল এডসেন্স একাউন্ট সেট আপ করতে হবে।

এডসেন্স একাউন্ট সেটা আপ করার পর ইউটিউব থেকে কয়েকদিন সময় লাগবে চ্যানেলের সাথে এডসেন্স একাউন্ট যুক্ত করতে। এটি যুক্ত হয়ে গেলে কনফার্মেশন ইমেইলের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। আপনি কোয়ালিফাইং ক্রিয়েটর হলে এবং আপনার চ্যানেলের সাথে এডসেন্স একাউন্ট যুক্ত করা থাকলে বোনাস ক্লেইম করার ৪-৬ সপ্তাহের মধ্যে আপনার পেমেন্ট পেয়ে যাবেন।

ইউটিউব শর্টস তৈরি করার নিয়ম

ইউটিউব শর্টস হলো- একটি স্মার্টফোন ও ইউটিউব শর্টস ক্যামেরা দ্বারা ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে ভিডিও করে নতুন নতুন দর্শকদের সাথে কানেক্ট হওয়ার এক দূর্দান্ত পথ। YouTube Shorts ক্রিয়েশন টুলস এ থাকা মাল্টি-সেগমেন্ট ক্যামেরা ৬০ সেকেন্ড দৈর্ঘের শর্ট ভিডিও করা অনেক বেশি সহজ করে দিয়েছে।

শর্টস ভিডিও তৈরি করার বিভিন্ন উপায় রয়েছে। ভার্টিকাল পোট্রেট মোডে ৬০ সেকেন্ডের যেকোনো ভিডিও আপলোড করা হলে তা শর্টস বলে গণ্য হবে। এছাড়াও সাধারণ নিয়মে ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে ভিডিও রেকর্ড করে আপলোড করা যাবে। এবং, ইউটিউব অ্যাপ থেকে ইউটিউব শর্টস ক্রিয়েশন টুলস ব্যবহার করে ইউটিউব শর্টস তৈরি করা যাবে।

ইউটিউব অ্যাপস থেকে সরাসরি যেভাবে শর্টস তৈরি করবেন

  • ইউটিউব অ্যাপে প্রবেশ করে Create YouTube Shorts Create Button এ ট্যাপ করুন। এরপর Create A Short YouTube Shorts Button এ ট্যাপ করে রেকর্ড করা শুরু করুন।
  • ১৫ সেকেন্ডে দৈর্ঘের ভিডিও রেকর্ড করার জন্য রেকর্ড বাটনের ওপরে থাকা ১৫ সেকেন্ড সিলেক্ট করুন। ৬০ সেকেন্ডের ভিডিও রেকর্ড করতে ৬০ সিলেক্ট করুন।
  • Add Music এ ক্লিক করে মিউজিক যুক্ত করুন। (ইউটিউব লাইব্রেরি থেকে মিউজিক বা অন্য ভিডিওর আসল অডিওর সাথে সর্বোচ্চ ১৫ সেকেন্ড রেকর্ড করা যাবে।)
  • ক্লিপ রেকর্ড করতে Capture Button ধরে রাখুন।রেকর্ড শুরু ও শেষ করতে Capture Buttion এ ট্যাপ করুন।
  • পূর্ববর্তী ক্লিপ রিমুভ করতে ট্যাপ করুন Undo Undo Button । এবং, সেটা ফিরিয়ে আনতে ট্যাপ করুন redo Redo Button
  • রেকর্ড নতুন করে শুরু করার জন্য ট্যাপ করুন Close Close Button অথবা পরবর্তীতে সম্পাদন করার জন্য Save as Draft সিলেক্ট করে বেরিয়ে যান।
  • ভিডিও রেকর্ড করা হয়ে গেলে Done এ ট্যাপ করুন এরপর Next এ ট্যাপ করে ভিডিওর ডিটেইলস দিন। এবং, সর্বোচ্চ ১০০ শব্দের মধ্যে একটি টাইটেল দিয়ে ভিডিও প্রাইভেসি ঠিক করে দিন।
  • ভিডিওটি বাচ্চাদের জন্য হলে, “Yes, it’s made for kids” না হলে “No it’s not made for kids” সিলেক্ট করে দিন।
  • এবার Upload এ ক্লিক করলেই শর্টসটি সফলভাবে আপলোড হয়ে যাবে।

প্রয়োজন মনে হলে পড়ে দেখতে পারেন-