গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আয় করার ১০টি নিশ্চিত উপায়

আপনি কি গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে অনলাইনে আয় করার উপায় সমূহ সম্পর্কে জানতে ইচ্ছুক? উত্তরটি যদি হ্যা হয়ে থাকে- তবে আপনি একদম সঠিক অবস্থানে এসে পৌছেছেন। কেননা, আমাদের আজকের এই লেখাতে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আয় করার ১০টি নিশ্চিত উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

বর্তমানে তরুণ প্রজন্মের মধ্যে অনেকেই প্রতিনিয়ত অনলাইনে আয় করার চেষ্টা করছে। আবার অনেকে বিভিন্ন উপায়ে অনলাইন থেকে আয়ও করছেন। তাদের মধ্যে গ্রাফিক্স ডিজাইন (Graphics Designing) অন্যতম। আপনি যদি ভালো মানের গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে পারেন, তবে মাস শেষে নিশ্চিতভাবেই গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আয় করতে পারবেন প্রচুর টাকা।

অনলাইনে ইনকাম করার জন্য প্রচুর মার্কেটপ্লেস তৈরি হয়েছে, যেখানে আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আয় করার জন্য গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে প্রোফাইল খুলে ইনকাম শুরু করতে পারেন। তবে, তার আগে আপনাকে উন্নতমানের গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে হবে। কারণ ওইসব মার্কেটপ্লেসে কাজের পরিমাণের সাথে সাথে প্রতিযোগিতাও অনেক বেশি। তাই আপনাকে অবশ্যই গ্রাফিক্স ডিজাইনে দক্ষ হতে হবে।

সৃজনশীলতার সাথে নতুন কিছু তৈরি করার দক্ষতা থাকতে হবে। তবেই আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন সফল হতে পারবেন।

এখন হয়তো ভাবছেন- গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আয় করার জন্য কি কি পদ্ধতি অবলম্বন করা প্রয়োজন? গ্রাফিক্স ডিজাইন করে ইনকাম করার অনেক উপায় রয়েছে। তবে আপনাদের সুবিধার্থে আজকে আমি শুধুমাত্র গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আয় করার উল্লেখযোগ্য ১০টি উপায় নিয়ে আলোচনা করবো; যেগুলোর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে ইনকাম করতে পারবেন।

তো চলুন গ্রাফিক্স ডিজাইন করে ইনকাম করার উপায়গুলো জেনে নেওয়া যাক!

গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আয় করার ১০টি উপায়

গ্রাফিক্স ডিজাইন হচ্ছে কম্পিউটারের মাধ্যমে ডিজাইন তৈরি করা। অর্থাৎ আপনার সৃজনশীল ডিজাইন গুলোকে কম্পিউটারাইজড করা।

আমরা সাধারণত বিভিন্ন পেইজ, সাইট, কোম্পানীর যে লোগো গুলো দেখি, ব্যানার এবং বিয়ের কার্ড তৈরি এগুলো সবই গ্রাফিক্স ডিজাইনার এর কাজ। গ্রাফিক্স ডিজাইনার হয়ে আপনি অনেক ভাবেই অফলাইনে এবং অনলাইনে ইনকাম করতে পারবেন।

তার মধ্যে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আয় করার সেরা ১০টি উপায় হলো-

1. লোগো ডিজাইন।
2. ফন্ট ডিজাইন।
3. টি-শার্ট ডিজাইন।
4. ভিডিও টিউটোরিয়াল বিক্রি।
5. টেমপ্লেট ডিজাইন।
6. ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন।
7. বিজ্ঞাপন ডিজাইন।
8. UI এবং UX ডিজাইন।
9. ইনফো গ্রাফিক্স ডিজাইন।
10. এডিট গ্রাফিক্স ডিজাইন।

আরও পড়ুন-

১. লোগো ডিজাইন (Logo Design) করে আয়

লোগোর মাধ্যমে একটি কোম্পানি বা প্রোডাক্ট এর পরিচয় বহন করে থাকে। বর্তমানের এই অনলাইন জগতে লোগোর গুরুত্ব অপরিসীম। তাই অনলাইন মার্কেটপ্লেসে লোগো ডিজাইনার এর চাহিদা অনেক বেশি।

আবার ঠিক তেমনি কম্পিটিটশনও অনেক বেশি। আপনি যদি ভাল মানের লোগো ডিজাইনার হয়ে থাকেন, তাহলে আপনি ভালো অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারবেন শুধুমাত্র লোগো ডিজাইন করেই।

আপনি এই লোগো ডিজাইন এর কাজ গুলো অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে পাবেন। মাসে ৫০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ২ লাখ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন শুধুমাত্র লোগো ডিজাইন করে। এটি হচ্ছে গ্রাফিক ডিজাইন এর মাধ্যমে আয় করার সহজ এবং নির্ভরযোগ্য উপায়।

২. ফন্ট ডিজাইন (Font Design) করে আয়

ফন্ট ডিজাইন মানে আমরা যে অক্ষর গুলো ব্যবহার করে লিখি সেই অক্ষরগুলোকে ডিজাইন করা। আপনি যদি লেখাকে সুন্দর করে লিখে কম্পিউটারাইজড করতে পারেন, তাহলে আপনি ফন্ট ডিজাইনার হিসেবে কাজ করতে পারবেন। আপনার ফন্ট ডিজাইন গুলো অনলাইনে বিক্রি করে ইনকাম করতে পারবেন।

আপনি অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে ফন্ট ডিজাইনের অনেক কাজ পেয়ে যাবেন। তবে ETSY হল ফন্ট বিক্রির জন্য জনপ্রিয় ওয়েবসাইট। এখানে আপনার তৈরি করা ফন্ট ডিজাইন গুলো বিক্রি করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। ভালো ফটো ডিজাইন করতে পারলে অবশ্যই আপনি প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

৩. টি-শার্ট ডিজাইন করে আয়

টি-শার্ট ডিজাইন করেও আপনি অনলাইনে ইনকাম করতে পারবেন। টি-শার্ট ডিজাইন মানে হচ্ছে অনলাইনে গ্রাফিক্স এর মাধ্যমে সৃজনশীল টি শার্ট এর ডিজাইন তৈরি করা।

সুন্দর সুন্দর টি শার্ট ডিজাইন করতে পারলে অনলাইনে টি-শার্ট ডিজাইনার হয়ে প্রতিমাসে লক্ষাধিক টাকা ইনকাম করতে পারবেন খুব সহজেই। এ ধরণের কাজও আপনি অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে পেয়ে যাবেন।

নতুবা অফলাইনেও পেতে পারেন। এখানে আমি টি-শার্ট ডিজাইন বিক্রির কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট এর নাম বলে দিচ্ছি।

  • Redbubble
  • Threadless
  • Teespring

৪. ভিডিও টিউটোরিয়াল বিক্রি করে আয়

আপনি যদি খুবই ভালো মানের গ্রাফিক্স ডিজাইনার হয়ে থাকেন। তাহলে আপনার দক্ষতা এবং সৃজনশীল মেধা দিয়ে সুন্দর সুন্দর ইউনিক আইডিয়া গুলো ভিডিও এর মাধ্যমে তুলে ধরতে পারেন। তারপর এই ভিডিওগুলোকে বিক্রি করে ইনকাম করতে পারেন।

অথবা, আপনার ভিডিওগুলোকে আপনি কোর্স আকারে বিক্রি করতে পারবেন। এছাড়া আপনি লাইভ ক্লাস এর মাধ্যমে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখিয়েও টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এভাবে, আপনি যেমন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে খ্যাতি অর্জন করবেন, তেমনি টাকাও ইনকাম হবে প্রচুর।

ভিডিও বিক্রি বা লাইভ ক্লাস বিক্রির একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হলো Skillshare. এখানে আপনি মানসম্মত ভিডিও তৈরি করে সহজে বিক্রি করতে পারবেন।

৫. টেমপ্লেট ডিজাইন করে আয়

গ্রাফিক্স ডিজাইন করে ইনকাম এর একটি উল্লেখযোগ্য উপায় হল টেমপ্লেট ডিজাইন। টেম্পলেট ডিজাইন বলতে কি বুঝায় আমার অনেকেই তা জানি।

গ্রাফিক্স এর মাধ্যমে বিভিন্ন ডিজাইনের টেম্পলেট তৈরি করা হয়। যেগুলোকে পরবর্তীতে এডিট করা যায়। এই টেমপ্লেট বিক্রির মাধ্যমে আপনি অনলাইনে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এই কাজগুলো আপনি অনলাইন মার্কেটপ্লেসে পেয়ে যাবেন।

বলা বাহুল্য, এই কাজগুলোর চাহিদাও অনেক বেশি। এখানে আমি জনপ্রিয় কিছু টেমপ্লেট ডিজাইন বিক্রির ওয়েবসাইটের নাম বলে দিচ্ছি।

  • Shutterstock
  • Pixels
  • Freepic

৬. ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন করে আয় করার উপায়

বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রিজ এর যে প্রোডাক্ট গুলো থাকে, যেমন: কাভার ডিজাইন, প্যাকেট ডিজাইন, হ্যান্ডটেক, লেভেল ডিজাইন এবং অন্যান্য ডিজাইনের যে কাজ, এগুলো তারা গ্রাফিক্স ডিজাইনার দিয়ে করিয়ে থাকেন।

সাধারণত এ কাজের জন্য গ্রাফিক্স ডিজাইনার খুঁজে বের করা হয় বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে। আপনি যদি ভালো ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইনার হতে পারেন তাহলে অনলাইন বা অফলাইনে প্রচুর কাজ পেয়ে যাবেন। এবং, সেই সাথে ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন ভিত্তিক এই কাজগুলো করে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

কিন্তু, এজন্য আপানাকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইনে দক্ষতার পরিচয় দিতে হবে। আপনি যত ভালো কাজ করতে পারবেন তত বেশি টাকা আয় করতে পারবেন।

মার্কেটপ্লেস গুলোতে এই ধরনের কাজের চাহিদা প্রচুর। তাই আপনি যদি দক্ষ হয়ে থাকেন, তবে কাজ পাওয়া নিয়ে কোন চিন্তা করতে হবে না।

৭. বিজ্ঞাপন ডিজাইন করে আয় করার পদ্ধতি

বিভিন্ন বিজ্ঞাপনি সংস্থার জন্য গ্রাফিক্স ডিজাইন করে অনলাইন ইনকামের আরো একটি পথ হচ্ছে বিজ্ঞাপন ডিজাইন। আমরা যে বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর বিজ্ঞাপন দেখে থাকি, এগুলো গ্রাফিক্স ডিজাইনার দিয়েই করানো হয়ে থাকে।

তাই, যখনই কোনো ইন্ডাস্ট্রির বা কোম্পানির বিজ্ঞাপনের প্রয়োজন হয়, তখন তারা গ্রাফিক্স ডিজাইনার হায়ার করে থাকে। তাই আপনি যদি ভালো বিজ্ঞাপন ডিজাইন করতে সক্ষম হয়ে থাকেন, তবে বিজ্ঞাপনের জন্য গ্রাফিক্স ডিজাইন করেও প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন।

তবে, এর জন্য আপনাকে বরাবরের মতোই অনেক বেশি দক্ষ ও সৃজনশীল হতে হবে। যে পণ্য বা প্রতিষ্ঠানের জন্য বিজ্ঞাপন তৈরি করবেন আপনার কাজের মধ্যে তাদের চাহিদা অনুযায়ী সেই ছবিটি পরিষ্কারভাবে ফুঁটিয়ে তুলতে হবে। তবেই না আসবে অর্থ, সম্মান ও খ্যাতি!

এই কাজগুলো আপনি অনলাইন মার্কেটপ্লেসে পেয়ে যাবেন। মার্কেটপ্লেসে বিজ্ঞাপন ডিজাইনারের চাহিদা অনেক বেশি। তাই আপনি যদি বিজ্ঞাপন ডিজাইন করে অনলাইনে ইনকাম করতে চান, তবে এই উপায়টিও বেছে নিতে পারেন।

৮. UI এবং UX ডিজাইন করে আয় করার উপায়

কোন অ্যাপের আউটলুক বা বাহ্যিক ফেইস হচ্ছে UI বা user interface. সাধারণত মানুষ কোন অ্যাপ এর বাহ্যিক ফেইস দেখে আকৃষ্ট হয় অ্যাপটি ব্যবহার করতে।

আর কোন একটি অ্যাপ বা সফটওয়্যার একজন ইউজার কত সহজে এবং স্বাচ্ছন্দ্যের সাথে ব্যবহার করতে পারবেন এটাকে বলা হয় UX বা user experience. সাধারণত কোন অ্যাপ তৈরি করা হয় সর্বোচ্চ সেবা দেওয়ার জন্য এবং ইউজারের আকর্ষণ ধরে রাখার জন্য।

যখনই কেউ কোন অ্যাপ লঞ্চ করতে চায় তখন তার একজন UI এবং UX ডিজাইনার প্রয়োজন হয়। কারণ তারা চায় এমন একটি অ্যাপ তৈরি করতে যেটি ব্যবহার করতে ইউজাররা স্বচ্ছন্দ বোধ করে। তাই আপনি যদি UI এবং UX ডিজাইনে দক্ষ হয়ে থাকেন।

আপনি যদি খুব ভালোভাবে UI এবং UX ডিজাইনের কাজটি শিখতে সক্ষম হয়ে থাকেন তবে এই কাজটি করেও প্রতি মাসে আকর্ষণীয় অংকের টাকা আয় করতে সক্ষম হবেন। এর চাহিদাও রয়েছে যথেষ্ঠ।

৯. ইনফো গ্রাফিক্স ডিজাইন করে আয়

ইনফো গ্রাফিক্স ডিজাইন এর মাধ্যমেও আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন। এই ধরনের কাজের চাহিদাও মার্কেটপ্লেসে অনেক বেশি।

১০. এডিট গ্রাফিক্স ডিজাইন করে আয়

এডিট গ্রাফিক্স ডিজাইন হল গ্রাফিক ডিজাইন টেম্পলেটগুলো থেকে এডিট এর মাধ্যমে নতুন ডিজাইন তৈরি করা। এই ধরনের কাজ করেও মার্কেটপ্লেস থেকে প্রচুর টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

বিভিন্ন কোম্পানি বা ইন্ডাস্ট্রি প্রথমেই গ্রাফিক্স ডিজাইনার দিয়ে টেম্পলেটগুলো তৈরি করে থাকে। তারপর আবার এই মার্কেটপ্লেস থেকেই এডিট গ্রাফিক্স ডিজাইনার খুঁজে টেম্পলেটগুলো ব্যবহার করে নতুন ডিজাইন তৈরি করার জন্য। তাই আপনি যদি এডিট গ্রাফিক্স ডিজাইনে দক্ষ হয়ে থাকেন, তাহলে নিশ্চিন্তে মাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইন মার্কেটপ্লেসে উপরে উল্লেখিত প্রতিটি কাজেরই যথেষ্ঠ চাহিদা রয়েছে। কারণ, প্রতিনিয়তই কোম্পানিগুলো নতুন কিছু না কিছু আবিষ্কার করে চলছে।

তবে আর দেরি কেন? আজই গ্রাফিক্স ডিজাইনিং করে অনলাইনে আয় করার উপায়সমূহ থেকে আপনার পছন্দ মতো কাজ অনলাইন ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস থেকে খুঁজে নিন। এরপর শুরু করে দিন নিজের দক্ষতা ও সৃজনশীলতাকে কাজে লাগিয়ে অনলাইনে ইনকাম করার প্রক্রিয়া।

তবে, একটি বিষয় ভুলে গেলে কিন্তু চলবেনা। আর সেটি হচ্ছে- আপনি যাই করুন না কেন; আপনাকে কিন্তু সে কাজে পরিপূর্ণভাবে দক্ষতা অর্জণ করে নিতে হবে।

কারণ, এই ক্রম বর্ধনশীল প্রতিযোগিতামূলত বিশ্বে প্রতিনিয়তই নতুন নতুন অগণিত সংখ্যক গ্রাফিক ডিজাইনার কাজের সন্ধানে যুক্ত হচ্ছে অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে। তাই দক্ষ না হলে, ভালো কাজ করে দেখাতে না পারলে, কাজ পাওয়া, ক্লায়েন্ট বা আউটসোর্সার ধরে রাখা অনেক কঠিন হয়ে যেতে পারে।

মোটামুটি এই ১০টি উপায়ে গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে নিশ্চিতভাবে ইনকাম করতে পারবেন। এগুলো গ্রাফিক্স ডিজাইনিং সংশ্লিষ্ট কাজ সমূহের মধ্যে সবচেয়ে সহজ এবং চাহিদাসম্পন্ন কাজ।

এছাড়া অন্যান্য যে সকল কাজগুলো আছে, তার মধ্যে 3D/2D মডেল ডিজাইন, এনিমেশন ডিজাইন, ভিডিও এডিটিং প্রভৃতি কাজ সমূহের মধ্যেও গ্রাফিক ডিজাইনার (Graphic Design) এর কাজ করার সুযোগ আছে। তবে জটিলতার মাপকাঠিতে বিচার করলে সেগুলো শেখা ও তা প্রয়োগ করে অনলাইনে ইনকাম করা আরো কঠিন। তাই আজ আর সেই প্রসঙ্গে আসছি না।

গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ পাবার উপায়

গ্রাফিক্স ডিজাইনের সবচেয়ে সহজ ও সেরা কাজগুলো সম্পর্কে আপনি ইতিমধ্যে জেনেছেন। এই কাজগুলো আপনি অনলাইন বা অফলাইন; উভয় মাধ্যমেই পেতে পারেন।

অনলাইনে কাজ খুঁজে নেওয়ার জন্য আমি কিছু উল্লেখযোগ্য অনলাইন মার্কেটপ্লেসের নাম বলে দিচ্ছি। এই মার্কেটপ্লেসগুলো থেকে একটু খুঁজলে এবং একটু ধৈর্য ধরে নিয়মিত কাজ পাবার জন্য বিড করে যেতে পারলে একটা সময়ে অবশ্যই পছন্দমতো কাজ পাবেন। বাকীটা আপনার উপর।

উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস ঠিকানা

  • Freelancer.com
  • Peopleperhour.com
  • Upwork. com
  • Fiverr.com
  • Guru.com
  • 99designs.com

এ কাজগুলো আপনি অনলাইন বা অফলাইনে নিজে চেষ্টা করেও শিখতে পারবেন। আবার, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কোর্স অনুসরণ করে বা পেইড কোর্স কিনে বাসায় বসেও শিখতে পারবেন। অনলাইন কোর্স, ইউটিউব ভিডিও দেখে দেখেও শেখা সম্ভব। তবে অবশ্যই প্রচণ্ডভাবে শেখার ইচ্ছেটা এবং অধ্যাবসায় থাকতে হবে।

আমাদের শেষ কথা

ভালো গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে পারলে অনলাইন কিংবা অফলাইন দুই মাধ্যম থেকেই প্রচুর টাকা ইনকাম করা সম্ভব। কারণ অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে প্রতিদিনই হাজার হাজার পোস্ট করা হয় গ্রাফিক্স ডিজাইনার প্রয়োজন শিরোনামে। এছাড়া বিভিন্ন এজেন্সিতেও নিয়মিত বিভিন্ন প্রয়োজনে নিত্যদিনই গ্রাফিক্স ডিজাইনার নিয়োগ দেওয়া হয়।

বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে তাই আজকের লেখাতে গ্রাফিক ডিজাইন শিখে আয় করার ১০টি উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। এই পেশায় যুক্ত হয়ে যারা অনলাইনে আয় করতে ইচ্ছুক; আশা করি লেখাটি তাদের কাজে আসবে। এবং, এই ১০টি কাজের দক্ষতা তৈরি করার মাধ্যমে গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করতে পারবেন।

অনলাইনে আয়, গ্রাফিক ডিজাইনিং করে আয়, প্রভৃতি বিষয়ে যদি কোন প্রশ্ন থেকে থাকে, তবে অবশ্যই কমেন্ট করে আমাদের জানাবেন। সবার জন্য শুভকামনা।

প্রয়োজন মনে হলে পড়ে দেখতে পারেন-