বাংলাদেশের সেরা ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি – ExonHost Hosting Review 2021

এক্সনহোস্ট (ExonHost) স্বল্প মূল্যে ভালো মানের হোস্টিং সেবা প্রদাণ করার জন্য বিখ্যাত। আপনি যদি ওয়েব হোস্টিং এর মানের বিষয়ে খুঁতখুঁতে স্বভাবের হয়ে থাকেন, তবে ExonHost নির্বাচন আপনার জন্য সঠিক সিদ্ধান্ত হতে পারে। ExonHost Hosting Review 2021 লেখাটি সম্পূর্ণ পড়ে নিন। আশা করি লেখাটি আপনার ওয়েবসাইট প্রকাশনা সম্পর্কিত পরবর্তী প্রজেক্ট এর জন্য সঠিক ওয়েব হোস্ট নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

২০০৯ সালের জানুয়ারি মাসে ExonHost এর প্রতিষ্ঠাতা সালেহ আহমেদ দেশীয় ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের জন্য ওয়েব হোস্টিং সার্ভিস সরবরাহ করার উদ্দেশ্যে Obosor.Com নামের একটি কোম্পানী প্রতিষ্ঠা করেন। শুরুর কিছুদিন পর Obosor.Com নামটি পরিবর্তন করে Socheaphost এবং ২০১৩ সালে ২য় বারের মতো নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় HostPair। পরবর্তীতে PARI Network এর সাথে ট্রেডমার্ক সম্পর্কিত কিছু ঝামেলার জন্য এর নতুন নাম দেয়া হয় ExonHost।

ExonHost এর বর্তমান সফলতা হুট করে চলে আসেনি। বেশকিছু মানুষের কঠোর পরিশ্রম এবং ভালো সার্ভিস তাদেরকে আজকের এই জনপ্রিয়তা উপহার দিয়েছে।

এক্সনহোস্ট (ExonHost) এর হোস্টিং নীতিমালা; শুরুর সময় থেকে আজ পর্যন্ত সর্বদাই ছিল গ্রাহকদের সুযোগ সুবিধাকে কেন্দ্র করে রচিত। তারা প্রথম থেকেই বিভিন্ন গবেষণা ও উন্নয়ন কার্যক্রমের মাধ্যমে নিজেদের উন্নত হতে উন্নততর করে চলেছে। স্থানীয় অন্য যে কোনো হোস্টিং সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান হতে ExonHost এ সর্বাধুনিক প্রযুক্তিগত আপডেটগুলো বেশ দ্রুত গ্রহণ করে ও কাজে লাগায়।

ইউজার সাপোর্টের ব্যাপারে ExonHost অনবদ্য। ব্যক্তিগতভাবে আমি নিজেও ExonHost ব্যবহার করছি। শুধু হোস্টিং নয়, তারা ডোমেইন নেম রেজিস্ট্রেশন সার্ভিসও আলাদাভাবে সরবরাহ করে। আমার ৩ টি ডোমেইন নেম এখনো ExonHost এ Host করা রয়েছে। যেকোনো সময় মোবাইল কল বা ম্যাসেঞ্জারে নক করলেই অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে রিপ্লাই করে তারা। আমি তাদের কাছে ম্যাসেঞ্জারে যতবারই সাহায্য চেয়েছি, উত্তর পেতে ৩০ মিনিটের বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয়নি।

বর্তমানে ExonHost সরবরাহ করছে-

  • শেয়ার্ড ওয়েব হোস্টিং (Shared Web Hosting)
  • রিসেলার ওয়েব হোস্টিং (Reseller Hosting)
  • ভার্চুয়াল প্রাইভেট সার্ভার (VPS) বা ভিপিএস ওয়েব হোস্টিং
  • ডেডিকেটেড সার্ভার (Dedicated Server)
  • ইমেইল হোস্টিং (Email Hosting)
  • এসএসএল সার্টিফিকেট (SSL Certificate)

আরও পড়ুন-

আপনার ওয়েবসাইট অন্য কোনো হোস্টিং প্রোভাইডার কোম্পানীতে হোস্ট করা থাকলে কোনো সমস্যা নেই। আপনি চাইলে ExonHost এর এক্সপার্টরা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ওয়েবসাইটের সমস্ত ফাইল ExonHost নিয়ন্ত্রিত সার্ভারে ট্রান্সফার করে দেবে।

ExonHost এর ফিচারসমূহ (ExonHost Hosting Review 2021)

ExonHost Web Hosting Review 2021
এক্সনহোস্ট (ExonHost) এর ফিচারসমূহ

১। ৯৯.৯% আপটাইম গ্যারান্টি : ExonHost প্রতিমাসে ৯৯.৯৯% আপটাইমের গ্যারান্টি দিচ্ছে। যে কোনো ওয়েব হোস্টিং এর জন্য আপটাইম সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কারণ, একটা ওয়েবসাইট যতই ভালো হোক না কেন, দিনের বেশিরভাগ সময়ই অফ থাকলে, সেই ওয়েবসাইটের আর কোনো দামই থাকে না।

২। ২৪/৭ কাস্টমার সাপোর্টঃ ExonHost সপ্তাহে ৭ দিন এবং দিনে ২৪ ঘন্টা সম্পূর্ণ ফ্রিতে এক্সপার্টদের দ্বারা কাস্টমার সার্ভিস দিয়ে থাকে। ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারসহ তাদের ওয়েবসাইটে লাইভ চ্যাট ও সাপোর্ট টিকিটের মাধ্যমে সবসময়ই কাস্টমারদের সমস্যা সমাধানের চেষ্টায় ব্যস্ত থাকে।

৩। ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টিঃ ExonHost ৩০ দিনের মধ্যে মানিব্যাক গ্যারান্টি অফার করে। অর্থাৎ, আপনি তাদের হোস্টিং ট্রাই করে দেখতে পারেন। ভালো না লাগলে ৩০ দিনের মধ্যে কর্তৃপক্ষকে জানালে আপনার টাকা ফেরত পাবেন।

৪। ৮ টি ডাটা সেন্টারঃ যেকোনো ওয়েব হোস্টিং কোম্পানির জন্য ডাটাসেন্টার অনেকটা মেরুদন্ডের মতো। ExonHost এর সেই মেরুদণ্ড ৮ টা আছে! অর্থাৎ কাস্টমারদের সার্ভারের আপটাইম নিয়ে কোনোরকম দুশ্চিন্তা করতে হয় না।

৫। ফ্রি সাইট ট্রান্সফারঃ যদি কোনো কাস্টমার আগের হোস্টিং থেকে তার ওয়েবসাইটটি ExonHost এ নিজ হাতে ট্রান্সফার করতে ভয় পায়, তবে তার জন্য থাকছে অভয়বাণী! ExonHost এর এক্সপার্টরা সম্পূর্ণ ফ্রিতে এ কাজ করে দেবে!

৬। ফ্রি অটো ইন্সটলারঃ ExonHost এর সিপ্যানেল থেকে এক ক্লিকে ওয়ার্ডপ্রেস সিএমএস ব্যবহার করে একট পূর্ণাঙ্গ ওয়েবসাইট খুলে ফেলে যায়। আলাদাভাবে ডাটাবেস সেটাপসহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে মাথা ঘামানোর প্রয়োজন পড়ে না।

৭। স্পীডঃ ExonHost প্রিমিয়াম কোয়ালিটির স্পীডের গ্যারান্টি দেয়। তাদের সার্ভারগুলো লাইট স্পীড সার্ভার (LiteSpeed Web Server)। লাইট স্পীড সার্ভার তুলনামূলকভাবে উন্নত ফিচারসমৃদ্ধ হয় এবং এর গ্রহণযোগ্যতা বেশি। এছাড়া তাদের আছে মেম ক্যাশ, যা ভালো মানের স্পীড নিশ্চিত করে।

এক্সনহোস্ট (ExonHost) এর পারফর্মেন্স রিভিউ (ExonHost Hosting Review 2021)

ব্যক্তিগতভাবে ExonHost এর সার্ভার স্পীড আমার কাছে অসাধারণ মনে হয়েছে। এই অসাধারণ লাগার প্রথম কারণ সম্ভবত লাইট স্পিড সার্ভার। লাইট স্পীড সার্ভার সব সময়ই অ্যাপাচি (Apache HTTP Server) সার্ভারগুলোর তুলনায় অনেক বেশি দ্রুতগতিসম্পন্ন হয়ে থাকে।

কিন্তু অধিকাংশ হোস্টিং কোম্পানী তাদের হোস্টিং এ অ্যাপাচি সার্ভারই বেশি ব্যবহার করে আসছে। এদিক থেকে ExonHost অনেক এগিয়ে।

এখন প্রশ্ন আসতে পারে, যদি অ্যাপাচি সার্ভার লাইট স্পীড সার্ভারের তুলনায় বেশি দ্রুত গতিসম্পন্নই হবে, তবে অন্যান্য বেশিরভাগ হোস্টিং সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান কেন অ্যাপাচির বদলে লাইট স্পীড ব্যবহার করছে না? তারা কি লাইটস্পীডের ব্যাপারে জানে না?

খুবই যুক্তিযুক্ত প্রশ্ন। উত্তর হলো- কোনো সার্ভারে লাইট স্পীড ব্যবহার করতে গেলে হোস্টিং কোম্পানিকে আলাদাভাবে লাইসেন্স ফি দিতে হয়। অথচ সার্ভারে অ্যাপাচি ব্যবহারের জন্য কোনোরকম লাইসেন্স ফি জমা দিতে হয় না, এটা সম্পূর্ণরূপে ফ্রি।

এজন্য বেশিরভাগ হোস্টিং সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান তাদের খরচ বাঁচানোর জন্য লাইট স্পীডের পরিবর্তে অ্যাপাচি ব্যবহার করে। পাশাপাশি এটা আশা করে যে, তাদের কাস্টমাররা প্যাকেজের কম দাম দেখেই গলে যাবে, কিসের সার্ভার – সেদিকে আর তাকাবে না!

ExonHost এ হোস্ট করা আমার ওয়েবসাইটের স্পীড অনেক বেশি হওয়ার দ্বিতীয় কারণ সম্ভবত লাইটস্পীড ক্যাশ নামক প্লাগইন।

যেহেতু ExonHost এর সার্ভার লাইট স্পীড, তাই এই সার্ভারে লাইটস্পীড ক্যাশ নামক অসাধারণ প্লাগইনটি সহজেই সাপোর্ট করে। আমার মতে, ওয়েবসাইটের স্পীড বাড়ানোর জন্য এবং ওয়েবপেজের সাইজ কমিয়ে আনার ক্ষেত্রে লাইটস্পীড প্লাগইনই এ পর্যন্ত রিলিজ হওয়া সবচেয়ে ভালো প্লাগইন। সবচেয়ে দারুন ব্যাপার হলো, লাইট স্পীড সার্ভারের জন্য এই প্লাগইনটি সম্পূর্ণ ফ্রি!

এই প্লাগইন ওয়েবসাইটে ইন্সটল দেয়ার জন্য অবশ্যই লাইট স্পীড সার্ভারের হোস্টিংপ্রয়োজন হয়।


হোস্টিং খরচ (Price Chart)

শেয়ার্ড হোস্টিং এর বেলায় ExonHost এর দুটি প্যাকেজ গ্রুপ এর অধীনে তিনটি ভিন্ন ভিন্ন প্যাকেজ রয়েছে। এই দুটি প্যাকেজ গ্রুপ এর মধ্যে মূল পার্থক্যগুলো হলো-

১। Web Hosting (Next Level SSD Hosting) – সাধারণত ছোট থেকে মাঝারি মানের ওয়েবসাইট হোস্ট করার জন্য প্রযোজ্য।

২। Turbo Hosting (Boost Your Website Speed) – বৃহৎ ও জনপ্রিয় ওয়েবসাইট বিশেষ করে যে সকল ওয়েবসাইটে প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর হয় এবং যাদের অত্যন্ত দ্রুতগতির স্পিড প্রদাণে সক্ষম ওয়েব হোস্টিং সার্ভার প্রয়োজন তাদের জন্য প্রযোজ্য।

আসুন আমরা একটু জানার চেষ্টা করি প্রথম গ্রুপের ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজগুলোর মধ্যে কি কি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এখানে উল্লেখ্য যে, প্রতিটি প্যাকেজে সার্ভার রিসোর্স (যেমনঃ ব্যান্ডউইথ, র‍্যাম এবং সিপিইউ) প্রয়োজন অনুযায়ী বিন্যস্ত করা হয়েছে।

Web Hosting প্যাকেজ গ্রুপের হোস্টিং প্যাকেজগুলোর তুলনামূলক আলোচনা

ExonHost Hosting Review 2021 - Shared Hosting Price Chart
ExonHost Shared Web Hosting Package Price Chart

প্যাকেজ ১ – স্টার্টার

এই প্যাকেজের মূল্য প্রতি মাসে ২.৯৯ ডলার বা বাংলাদেশী টাকায় ২৪৫ টাকা।

এই প্যাকেজ ব্যবহার করলে আপনি আপনার হোস্টিং এ শুধুমাত্র দুটি ওয়েবসাইট খুলতে পারবেন। দুটির বেশী ওয়েবসাইট খোলা যাবে না। সাথে পাবেন ফ্রি এসএসএল সার্টিফিকেট, সিকিউরিটি শিল্ড, প্রভৃতি যা অন্য অনেক হোস্টিং সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান অতিরিক্ত অর্থের বিনিময়ে দিয়ে আসছে। এছাড়াও প্যাকেজে আরো পাবেন-

  • ৫ জিবি স্টোরেজ
  • ২৫০ জিবি ব্যান্ডউইথ
  • ৭০০ এমবি র‍্যাম লিমিট
  • ১ কোর লিমিট
  • ২০ টি এ্যান্ট্রি প্রসেস
  • ১০ টি ইমেইল, ডাটাবেস

প্যাকেজ ২ – স্ট্যান্ডার্ড

এই প্যাকেজটি নিতে আপনাকে প্রতি মাসে ৫.২১ ডলার পরিশোধ করতে হবে, যা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৪৩১ টাকার সমতুল্য।

এই প্যাকেজেও পাওয়া যাবে ফ্রি এসএসএল ও এসএসডি স্টোরেজ সুবিধা। প্যাকেজ ১ থেকে এর দাম বেশি হওয়ার মূল কারণ এর স্টোরেজ এবং ব্যান্ডউইথ। এতে আছে ১০ জিবি স্টোরেজ এবং ব্যান্ডউইথ ৫০০ জিবি। এছাড়াও এই প্যাকেজে আরো পাবেন –

  • ১ জিবি র‍্যাম লিমিট
  • ১ কোর লিমিট
  • ২০ টি এন্ট্রি প্রসেস
  • ২০ টি ইমেইল, ডাটাবেস

এই প্যাকেজ ব্যবহার করলে আপনি আপনার একাউন্টের হোস্টিং সার্ভারে এ ৫টি ওয়েবসাইট হোস্ট করতে পারবেন।

প্যাকেজ ৩ – এ্যাডভান্স

এই প্যাকেজের মাসিক ভাড়া ৯.৭১ ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় ৭৯৬ টাকার কাছাকাছি।

এই প্যাকেজ ব্যবহার করলে আপনি আপনার হোস্টিং সার্ভারে ১০টি ওয়েবসাইট চালাতে পারবেন। এর স্টোরেজ ও ব্যান্ডউইথের পরিমাণ যথাক্রমে ২০ জিবি ও ১০০০ জিবি। এছাড়াও এই প্যাকেজের অন্যতম আকর্ষণ হিসেবে রয়েছে –

  • ২ জিবি র‍্যাম
  • ২ কোর লিমিট
  • ৫০ টি এন্ট্রি প্রসেস

পাশাপাশি ফ্রি এসএসএল সার্টিফিকেট তো পাচ্ছেনই!

Turbo Hosting প্যাকেজ গ্রুপের হোস্টিং প্যাকেজগুলোর তুলনামূলক আলোচনা

ExonHost Turbo Hosting Price Chart
Turbo Hosting প্যাকেজ গ্রুপের হোস্টিং প্যাকেজ

টার্বো হোস্টিং প্যাকেজ সমূহ – টার্বো প্লাস, টার্বো পাওয়ার ও টার্বো প্রেস্টিজ

এই প্যাকেজ সমূহের মূল্য-

Turbo Plus (টার্বো প্লাস) – ১৪.৯০ ডলার / মাস, যা বাংলাদেশী টাকায় ১২২৭ টাকার মতো। স্টোরেজ পাবেন ৫০ জিবি।

টার্বো পাওয়ার (Turbo Power) – ২২.৪৯ ডলার / মাস, বাংলাদেশী টাকায় ১৮৪২ টাকা। স্টোরেজ ৭৫ জিবি।

Turbo Prestige (টার্বো প্রেস্টিজ) – ২৭.৭৪ ডলার / মাস, বাংলাদেশী টাকায় ২২৭২ টাকা। স্টোরেজ পাবেন ১০০ জিবি এসএসডি।

এখানে উল্লেখ করার মতো আকর্ষণীয় ব্যাপার হলো, এতে যত খুশি তত ওয়েবসাইট খোলা যাবে। এর স্টোরেজে ভিন্নতা থাকলেও ব্যান্ডউইথ আনলিমিটেড পাবেন।

এছাড়াও,

ExonHost Turbo Hosting প্যাকেজ সমূহের অন্যন্য ফিচারসমূহ নিম্নরুপ –

ExonHost Turbo Hosting Package Features
Image Source: ExonHost.Com

লক্ষ্য করুন, উপরের প্যাকেজগুলোর শেষ প্যাকেজ সমূহ শেয়ার্ড হোস্টিং এর ভেতরে থাকলেও এটার রিসোর্সগুলো কিন্তু শেয়ার্ড হোস্টিং এর হিসেবে অনেক বেশি। এ ধরণের রিসোর্স সমৃদ্ধ প্যাকেজ অন্যান্য হোস্টিং সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো “সেমি ডেডিকেটেড” হোস্টিং নামে চড়া মূল্যে ভাড়া দেয়। তাই, আপনার যদি অনেকগুলো ওয়েবসাইট থাকে কিংবা যদি আপনি অল্প দামে ডেডিকেটেড হোস্টিং কেনার বাসনা রাখেন, তবে এই প্যাকেজগুলো নিশ্চয়ই আপনার বিবেচনা করা উচিৎ।

এছাড়াও, ExonHost শেয়ার্ড হোস্টিং এর পাশাপাশি ভিপিএস কিংবা ডেডিকেটেড সার্ভারের প্যাকেজ সরবরাহ করে আসছে। আপনি আপাতত শেয়ার্ড হোস্টিং নিয়ে যাত্রা শুরু করার পরে ওয়েবসাইট শেয়ার্ড হোস্টিং এ না রাখতে চাইলে কিংবা ভিপিএস বা ডেডিকেটেড এ যেতে চাইলে ExonHost ছাড়ার প্রয়োজন পড়বে না। কেননা, এদের তো এগুলো আছেই …

ExonHost ওয়েব হোস্টিং নির্বাচনের অসুবিধা সমূহ

আমি বিভিন্ন হোস্টিং এর রিভিউ লিখেছি। সেগুলোর রিভিউ লেখার সময় সবার উপরেই হোস্টিংটার সুবিধা অসুবিধা মোটা দাগে উল্লেখ করে দেয়া আমার অভ্যাস। কিন্তু ExonHost Hosting Review 2021 লেখার সময় এর অসুবিধা আমাকে লিখতে হলো আর্টিকেলের একদম শেষ প্রান্তে।

এর কারণ, আমি ExonHost এর আহামরি কোনো অসুবিধা খুঁজে পাইনি। ExonHost আমি নিজেও ব্যবহার করেছি, তাই স্বাভাবিকভাবেই এটা সম্পর্কে আমার ভালো ধারণা রয়েছে। মোটা দাগে উল্লেখ করার মতো আমার চোখে তেমন কিছুই পড়েনি।

এক্সনহোস্ট ExonHost এর অসুবিধার লিস্ট খুঁজতে দ্বারস্ত হয়েছিলাম গুগলের কাছে। সেখানেও বিভিন্ন ব্যবহারকারী শুধু প্রশংসার স্রোতেই ভাসিয়ে দিয়েছে এই হোস্টিং কোম্পানিকে।

তবে, ExonHost এর মূল্য নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুলেছে। অনেকে বলেছে, শেয়ার্ড হোস্টিং হিসেবে স্টার্টিং প্যাকেজের মূল্য তুলনামূলকভাবে বেশি.

এছাড়া আরো একটি সমস্যা হলো, ExonHost তাদের সকল প্যাকেজের সঙ্গে ফ্রি ডোমেইন প্রোভাইড করে না।

শেষকথা

আপনি যদি সিরিয়াস টাইপ ব্লগ, ম্যাগাজিন বা নিউজপেপার ওয়েবসাইট কিংবা ছোট বা বড় ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান এবং পাশাপাশি আর্থিক বিষয়ে উদার হয়ে থাকেন, তবে চিন্তা না করে ExonHost এর দিকে হাত বাড়ান।

ExonHost এ আসতে বলার মূল কারণ হলো এর দুর্দান্ত পারফর্মেন্স, স্পীড, আপটাইম, মানিব্যাক গ্যারান্টি, অনেকগুলো সার্ভার এবং কাস্টমার সাপোর্টারদের অমায়িক ব্যবহার।

এক্সনহোস্ট এর দামও এর লেভেল অনুযায়ী অনেক সাশ্রয়ী। অনেকে বলতে পারেন, কি সাশ্রয় হলো! অনেক লোকাল কোম্পানী বাৎসরিক ৭০০ – ৮০০ টাকাতেও হোস্টিং সেবা দিয়ে থাকে!

কিন্তু ভাই, এখানে লেভেল দেখতে হবে। তাকাতে হবে পারফর্মেন্স এর দিকে। অন্য দেশী লোকাল কোম্পানীর সাথে একে গুলিয়ে ফেললে হবে না।

মানের দিক থেকে ExonHost এর প্রতিদ্বন্দ্বী হলো BlueHost কিংবা Hostinger এর মতো প্রতিষ্ঠানগুলো। সেগুলোর প্রাইস বা মূল্যের সাথে তুলনা করলে নির্ঘাত বিষম খাবেন। কেননা, ওদের বিভিন্ন প্যাকেজের তুলনায় ExonHost এর প্যাকেজগুলোর দাম তুলনামূলকভাবে অনেক কম।

এছাড়াও ExonHost যেহেতু বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠান, তাই পেমেন্ট প্রসেসও সহজ। বিকাশ কিংবা রকেট দিয়েই এর বিল পরিশোধ করা যায়! ক্রেডিট কার্ড বা ভিসার ঝামেলায় যাওয়ার প্রয়োজন হয় না!

ExonHost Hosting Review 2021 সম্পর্কিত লেখাটি এখানেই শেষ করছি। কোন প্রশ্ন করলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। লেখাটি ভালো লেগে থাকলে শেয়ার করতে ভুলবেন না যেন!

সম্পাদকের বাছাই –

Leave a Comment